Latest News

নিরাপত্তা বিঘ্নিত তাঁর, রাষ্ট্রপতিকে বলে এলেন মোদী, ভোটের অঙ্ক কষছে দল

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পাঞ্জাবে তাঁর নিরাপত্তা বিঘ্নিত হওয়ার ঘটনা রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ ও উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নাইডুকে জানালেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আজ রাষ্ট্রপতি ভবনে গিয়ে কোবিন্দের সঙ্গে দেখা করেন প্রধানমন্ত্রী। একান্ত বৈঠকে জানান, কীভাবে তাঁর নিরাপত্তাকে লঘু করে দেখেছে পাঞ্জাবের কংগ্রেস সরকার। প্রধানমন্ত্রীকে ফোন করেন উপ রাষ্ট্রপতি। বেঙ্কাইয়া প্রধানমন্ত্রীর কাছে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন পাঞ্জাবের ঘটনায়।

বুধবারই পাঞ্জাব ছাড়ার আগে মোদী ইঙ্গিত করেছিলেন, ওই ঘটনায় তাঁর প্রাণ সংশয় হতে পারত। ভাতিন্দা বিমানবন্দর ছাড়ার মুখে পাঞ্জাবের অফিসারদের প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘আপনাদের মুখ্যমন্ত্রীকে বলে দেবেন যে আমি শেষ পর্যন্ত বেঁচে ফিরতে পেরেছি।’ বুঝিয়ে দিয়েছিলেন, ঘটনাটি তিনি ছেড়ে দেবেন না।

প্রধানমন্ত্রীর ওই মন্তব্য থেকেই খানিক আভাস মিলেছিল পাঞ্জাবে অবরোধের জেরে তাঁর কনভয় যেতে না পারার ঘটনাকে প্রধানমন্ত্রী স্বয়ং নিরাপত্তার বিপন্নতা বলে দেখাতে চাইছেন। যদিও কৃষকদের অবরোধের জেরে তাঁর কনভয়কে মুখ ঘুরিয়ে ফিরে যেতে হয় শুধুমাত্র। নিরাপত্তার সরাসরি কোনও বিঘ্ন ঘটেনি। গাড়ি ঘিরে রেখেছিল পাঞ্জাব পুলিশ ও এসপিজি কমান্ডোরা।

বুধবার ঘটনার পরপরই বিজেপি পাঞ্জাবের ঘটনা নিয়ে গোটা দেশেই আন্দোলনে নেমে পড়ে। নিশানা করে কংগ্রেসকে। বিজেপির জেলা-রাজ্য থেকে জাতীয় স্তরের সব নেতাই মুখ খুলেছেন। আজ সকাল থেকে প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা নিয়ে বিজেপি নেমে পড়েছে যজ্ঞ, পূজাপাঠে। যা দেখে রাজনৈতিক মহল মনে করছে, আগামী দিনে বিষয়টিকে বিজেপি গোটা দেশেই ইস্যু করতে চাইছে। প্রধানমন্ত্রীর কথার রেশ ধরে বিজেপি নেতারা বলতে শুরু করেছেন প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিপন্ন। অনেকেই মনে করছে এটা আসলে বিজেপির সমবেদনা পাওয়ার চেষ্টা। যে কোনও মূল্যে ভোটের বাক্সে এর প্রতিফলন ঘটাতে চাইছে তারা।

বাংলার প্রান্তে আজ মহিলা মোর্চা মৃত্যুঞ্জয় জপ ও সন্ধ্যা ৬টা থেকে যুব মোর্চার নেতৃত্বে মোমবাতি/মশাল মিছিল অনুষ্ঠিত হবে। দেশ জুড়ে বিজেপি শুরু করেছে #ModiJiJiyoHazaroSaal প্রচার। বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা করে টুইট করেছেন।

শুধু নিরাপত্তা বিঘ্নই নয়, প্রধানমন্ত্রীর সফরে প্রোটোকল ভঙ্গেরও অভিযোগ তুলেছে কেন্দ্র। পাঞ্জাবের মুখ্যসচিব ও পুলিশের ডিজি বিমানবন্দরে প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে যাননি।

পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি বুধবারই সাংবাদিক বৈঠক করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী যে পরিকল্পনা বদলে সড়ক পথে যাবেন সেটা অনেক পরে রাজ্য প্রশাসন জানতে পারে। আর করোনার কারণে তিনি প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে যাননি। তাঁর মুখ্যসচিবের করোনা হয়েছে। সেই কারণে বিমানবন্দরে যাননি মুখ্যসচিবও। কিন্তু প্রোটোকল মেনে রাজ্য পুলিশের ডিজি প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানাতে কেন যাননি সে প্রশ্নের সদুত্তর মেলেনি।

You might also like