Latest News

তারা সৈনিকদের আত্মত্যাগকে ছোট করে দেখাচ্ছে, সার্জিকাল স্ট্রাইক নিয়ে কংগ্রেসকে আক্রমণ মোদীর

দ্য ওয়াল ব্যুরো : সার্জিকাল স্ট্রাইক (Surgical Strike) ও পুলওয়ামার (Pulwama) জঙ্গি হামলা। দু’টি বিষয় তুলে বুধবার কংগ্রেস (Congress) তথা বিরোধীদের তুলোধোনা করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। এদিন তিনি পাঠানকোটে জনসভা করেন। মোদী বলেন, ২০১৬ সালে পাঠানকোটে জঙ্গি হামলায় যে সৈনিকরা জীবন বিসর্জন দিয়েছিলেন, তাঁদের আত্মত্যাগকে ছোট করে দেখিয়েছে কংগ্রেস। তারা সরকারের উদ্দেশ্য নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল। তারা পাঞ্জাবের মানুষ, এমনকি সেনাবাহিনী নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে।

পরে মোদী বলেন, পুলওয়ামায় জঙ্গি হানার বর্ষপূর্তিতেও কংগ্রেস নানা প্রশ্ন তুলেছে। তখনও তারা ‘পাপ লীলা’ চালিয়ে গিয়েছে।

২০১৯ সালের ১৪ ফেব্রুয়ারি জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় জৈশ ই মহম্মদ জঙ্গিরা সিআরপিএফের ওপরে হামলা চালায়। ৪০ জন সিআরপিএফ কর্মী নিহত হন। এরপরে পাকিস্তানের বালাকোটে সার্জিকাল স্ট্রাইক চালায় ভারত। কংগ্রেস সাংসদ রাহুল গান্ধী এই সার্জিকাল স্ট্রাইক নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

কংগ্রেসের পাশাপাশি এদিন আম আদমি পার্টিকেও তীব্র আক্রমণ করেন মোদী। তিনি বলেন, আপ হল কংগ্রেসের ‘ফোটোকপি’। দু’টি দলই অযোধ্যায় রামমন্দির নির্মাণ নিয়ে খুশি নয়। সেনাবাহিনী কিছু করলেই তারা নিন্দা করে। উপস্থিত জনতার উদ্দেশে তিনি বলেন, “এই সব লোককে সহ্য করবেন না”।

দিল্লিতে সরকার গড়ার জন্য কংগ্রেসের সমর্থন নিয়েছিল আপ। মোদী সেকথা উল্লেখ করে বলেন, “পাঞ্জাব সিদ্ধান্ত নিয়েছে, এবার পাক্কা পরিবর্তন চাই”।

এদিন কর্তারপুর সাহিব করিডোরের কথাও উল্লেখ করেন মোদী। তিনি বলেন, “কংগ্রেস পাকিস্তানে কর্তারপুর গুরুদোয়ারা ফেলে চলে এসেছিল। তারা কি কর্তারপুরকে ভারতে রাখতে চেষ্টা করেছিল? ১৯৬৫ সালে যদি তারা চেষ্টা করত, তাহলে গুরু নানকের জন্মস্থান ভারতের অন্তর্ভুক্ত হত।”

মোদী বলেন, “পাঁচ বছর আপনাদের সেবা করার সুযোগ দিন। আপনাদের কৃষি, বাণিজ্য ও শিল্প লাভজনক হয়ে উঠবে।”

You might also like