Latest News

এমআরআই মেশিনে দু’ঘণ্টা আটকে থাকলেন রোগী! হাওড়ার নার্সিংহোমে বড় বিপত্তি

দ্য ওয়াল ব্যুরো, হাওড়া: এমআরআই মেশিনের (MRI machine) ভেতরে টানা দু’ঘণ্টা এক রোগীর আটকে থাকার অভিযোগ উঠল! জানা গেছে, এই ঘটনাটি ঘটেছে হাওড়ার (Howrah) ডোমজুড়ের একটি নার্সিংহোমে (nursing home)। রোগীর পরিবারের আরও অভিযোগ, নার্সিংহোমের যেই কর্মী এমআরআই করাচ্ছিলেন, তাঁর কোনও প্রশিক্ষণ নেই। এই কারণেই এমন বিপত্তি৷ ঘটনার জেরে চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে এলাকায়। রোগীর পরিবারের বিক্ষোভে দীর্ঘক্ষণ ধরে ওই নার্সিংহোমে অচলাবস্থা তৈরি হয়৷ শেষ পর্যন্ত প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এক কর্মীকে নিয়ে এসে ওই রোগীকে এমআরআই মেশিন থেকে বের করা হয়৷

মুমতাজ বেগম নামে ওই রোগীর পরিবারের অভিযোগ, শনিবার বিকেলে এমআরআই করানোর জন্য ওই বধূকে ডোমজুড়ের নার্সিংহোমে আনা হয়৷ কিন্তু এমআরআই করাতে নিয়ে যাওয়ার পর দীর্ঘক্ষণ কেটে গেলেও রোগীকে বের করা হচ্ছে না দেখে ভেতরে ঢুকে পড়েন ওই যুবতীর স্বামী৷ তাঁর দাবি, যে কর্মী এমআরআই মেশিন চালাচ্ছিলেন, তাঁর সেই সম্পর্কে কোনও ধারণাই ছিল না৷ ফোনে অন্য কারও থেকে শুনে শুনে মেশিন চালাচ্ছিলেন তিনি৷

পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীর সঙ্গে লাগাতার যৌন সঙ্গম! স্ত্রীর কাছেই হাতেনাতে ধরা পড়ল যুবক

রোগীর পরিবারের অভিযোগ, প্রশিক্ষণহীন ওই কর্মীর ভুলেই পরীক্ষা চলতে চলতে মাঝপথে আটকে যায় মেশিন৷ রোগীর শরীরের অর্ধেক তখন এমআরআই মেশিনের ভিতরে৷ ফলে তাঁকে বের করে আনাও সম্ভব হচ্ছিল না৷ এমন পরিস্থিতি দেখে সঙ্গে সঙ্গে পরিচিতদের খবর দিয়ে নার্সিংহোমে ডাকেন রোগীর স্বামী৷ এ দিকে মেশিনের ভিতরে আটকে থেকে ভয়ে, আতঙ্কে আরও অসুস্থ হয়ে পড়েন ওই মহিলা৷ অন্যদিকে নার্সিংহোমে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন রোগীর পরিবারের সদস্যরা৷ শেষ পর্যন্ত অন্য একজন কর্মীকে ডেকে এনে ফের মেশিন চালু করা হয়। এরপর বরে করে আনা হয় ওই রোগীকে৷

ঘটনার জেরে তুমুল উত্তেজনা ছড়ায় নার্সিংহোমে৷ পরে ডোমজুড় থানাতে অভিযোগ জানাতে যান রোগীর আত্মীয়রা৷ শেষ পর্যন্ত অবশ্য অভিযোগ দায়ের করা হয়নি৷ তবে এই ঘটনায় নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের ভূমিকা নিয়ে বিস্তর প্রশ্ন উঠছে৷ কিন্তু নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষের তরফে অবশ্য কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি৷

You might also like