Latest News

Partha Chatterjee Assets: পার্থর সম্পত্তি কমেছে, এক বছর আগে সওয়া কোটির সম্পদ ছিল, দাবি হলফনামায়

দ্য ওয়াল ব্যুরো: এসএসসি (SSC) মামলায় শিল্পমন্ত্রী তথা প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে তাঁর সম্পত্তির (Partha Chatterjee Assests) হিসাব পেশ করতে বলেছে কলকাতা হাইকোর্ট। শুক্রবার এই নির্দেশ দিয়েছেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। পার্থবাবু হয়তো নিশ্চয়ই তা জমা দেবেন। তার আগে দেখে নেওয়া যাক, এক বছর আগে বিধানসভা ভোটের সময়ে তাঁর সম্পত্তির বহর কত ছিল।

নির্বাচন কমিশনকে বেহালা পূর্বের বিধায়ক পার্থ চট্টোপাধ্যায় হলফনামা দিয়ে জানিয়েছিলেন টাকার অঙ্কে তাঁর মোট সম্পত্তির পরিমাণ ১ কোটি ১৫ লক্ষ ৯৪ হাজার ৮৬৩ টাকা। কিন্তু তার আগে অর্থাৎ ২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটের সময়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মোট সম্পত্তির পরিমাণ ছিল এর থেকে বেশি। ষোলো সালে পার্থবাবু হলফনামায় কমিশনকে জানিয়েছিলেন তাঁর সম্পত্তির পরিমাণ ১ কোটি ৬০ লক্ষ ৫৯ হাজার টাকা। যার অর্থ হল, ২০১৬ থেকে ২০২১ সালের মধ্যে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সম্পত্তির পরিমাণ কমে গিয়েছে অনেকটাই।

২০১৬-র ভোটে হলফনামায় পার্থ ঘোষণা করেছিলেন তাঁর প্রায় ৩২ লাখ টাকার দেনা রয়েছে। অথচ ২০১১-র বিধানসভা ভোটে কমিশনের কাছে দাখিল করা হিসাবের সঙ্গে তুলনা করলে বোঝা যাবে, পরের ৫ বছরে তাঁর সম্পদ অনেকটাই বেড়েছিল। ২০১১ সালে পার্থ জানিয়েছিলেন, তাঁর মোট সম্পত্তির পরিমাণ টাকার অঙ্কে ৬৯ লক্ষ ৭ হাজার ৮২১ টাকা।

আয়কর দফতরকে দেওয়া আয়ের রির্টানের হিসাব তুলে ধরে গত বছর কমিশনের কাছে পেশ করা হলফনামায় তৎকালীন শিক্ষামন্ত্রী জানিয়েছিলেন, ২০১৯-’২০ আর্থিক বছরে তাঁর আয়ের পরিমাণ ছিল ৫ লাখ ৩৯ হাজার ৭২০ টাকা। অনুমান করা যায়, এই আয়ের একটি অংশ মন্ত্রী এবং বিধায়ক হিসাবে পাওয়া ভাতার টাকা।

হলফনামায় পেশ করা হিসাব অনুযায়ী ২০১৫-’১৬ থেকে পার্থবাবুর বাৎসরিক আয়ের পরিমাণ ক্রমশ কমেছে। যেমন ২০১৫-’১৬ আর্থিক বছরে তাঁর আয় ছিল ৮ লক্ষ ৩৭ হাজার ১ টাকা। পরের দুই বছরে তা যথাক্রমে ৭ লক্ষ এবং ৬ লক্ষ টাকার সামান্য বেশি ছিল। ২০১৮-’১৯ সালে তা কমে ৫ লক্ষেরও কম হয়ে যায়।

পার্থবাবু হলফনামায় জানিয়েছিলেন, প্রার্থীপদ জমা দেওয়ার সময় তাঁর হাতে নগদ অর্থ ছিল ১ লক্ষ ৪৮ হাজার ৬৭৬ টাকা। বিভিন্ন ব্যাঙ্কের সঞ্চয় প্রকল্পে গচ্ছিত ছিল ৬৪ লক্ষ ৪৬ হাজার টাকা। জীবন বিমার পলিসি রয়েছে ২৫ লক্ষ টাকার।

সব মিলিয়ে অস্থাবর সম্পত্তির পরিমাণ ৯০ লক্ষ ৯৪ হাজার ৮৬৩ টাকা। এছাড়া তিনি তাঁর নাকতলার বাড়ির তখনকার বাজার মূল্য দেখিয়েছিলেন ২৫ লক্ষ টাকা। বাবার কেনা জমিতে ওই তিনি নিজের টাকায় বাড়ি বানিয়েছেন।

পার্থকে রক্ষাকবচ দিল না ডিভিশন বেঞ্চ, হাতে রইল সুপ্রিম কোর্ট

You might also like