Latest News

পরেশকে মন্ত্রিসভা থেকে সরালেন মমতা, মেয়ের চাকরির পর বাবার কাজও গেল!

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পরেশ অধিকারীর (Paresh Adhikari) মেয়ে যে বেআইনি ভাবে অনেককে টপকে স্কুলের চাকরি পেয়েছেন সেই খবর ব্রেক করেছিল দ্য ওয়াল। পরে হাইকোর্টের নির্দেশে অঙ্কিতা অধিকারীর চাকরি গিয়েছে। তা নিয়ে সিবিআই তদন্ত চলছে। সেই তদন্তে অঙ্কিতার বাবা তথা শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীকে ডেকে জিজ্ঞাসাবাদও করেছিল কেন্দ্রীয় তদন্ত এজেন্সি। এ হেন প্রেক্ষাপটে এবার সেই পরেশের মন্ত্রিত্বটাও আর রইল না।

সোমবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) বলেছিলেন, মন্ত্রিসভায় রদবদল করবেন। কয়েকজনকে তিনি দলের কাজে লাগাতে চান। দেখা গেল সেই বাদের খাতায় অন্যতম নাম পরেশের। তিনি ছিলেন শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী। তাঁর জায়গায় আনা হয়েছে হেমতাবাদের বিধায়ক সত্যজিৎ বর্মনকে।

অনেকের মতে, পরেশকে নিয়ে অস্বস্তি ছিলই তৃণমূলের মধ্যে। পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে মন্ত্রিসভা ও দলের সমস্ত পদ থেকে সরিয়ে দিয়ে তৃণমূল যখন দুর্নীতি ইস্যুতে ‘জিরো টলারেন্স’ দেখাতে চাইছিল সেই সময়ে বিরোধীরা প্রশ্ন ছুড়ছিল, পরেশ তাহলে মন্ত্রী রয়েছেন কী করে? দেখা গেল, পরেশকে নিঃশব্দে ছেঁটে ফেললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শিল্পে শশী, বাবুল তথ্য প্রযুক্তি ও পর্যটনে, ববির দফতর কমল, মমতা রদবদলে আর যা করলেন

আরও যাঁদের বাদ দেওয়া হয়েছে তাঁদের ক্ষেত্রে অন্য কারণ রয়েছে বলেই মনে করছেন পর্যবেক্ষকদের অনেকে। যেমন সেচমন্ত্রী ছিলেন সৌমেন মহাপাত্র। তাঁকে দলের তমলুক সাংগঠনিক জেলা সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। হুগলির রত্না দে নাগ অসুস্থ। তাই তাঁকেও মন্ত্রিসভায় রাখেননি মমতা। কিন্তু পরেশের বাদ পড়ার কারণ যে মেয়ে অঙ্কিতার নিয়োগ কাণ্ড তা স্পষ্ট বলেই মত অনেকের। কারণ পরেশবাবু সংগঠনেও কোনও পদ পাননি, আবার তিনি যে অসুস্থ তাও বলা যাবে না।

অনেকের মতে, পার্থ কাণ্ডে অর্পিতার বাড়ির টাকা যেমন দুর্নীতি বেআব্রু করে দিয়েছিল তেমন অঙ্কিতার দিদিমণির চাকরিও সরকারের সামগ্রিক ভাবমূর্তিতে আঘাত হেনেছিল। দেখা গেল সেই পরেশকে মন্ত্রিসভা থেকে বাদ দিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী।

You might also like