Latest News

চোকসিকে ফেরাতে সারদার নেতৃত্বে সিবিআই টিম গিয়েছে ডোমিনিকায়, কাল আদালতে হাইভোল্টেজ শুনানি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ‘মিশন চোকসি’ অপারেশন এখন ক্লাইম্যাক্সের পথে। অন্তত সূত্রের খবর তেমনটাই বলছে। গত শুক্রবার ডোমিনিকায় ৮ সদস্যের তদন্তকারী দল এসে পৌঁছয়। সেখানকারই একটি জেলে বন্দি রয়েছেন ফেরার ব্যবসায়ী মেহুল চোকসি। কাল তাঁকে আদালতে তোলা হবে। সেখানে ভারত থেকে প্রাইভেট জেটে পৌঁছনো অফিসারদেরও হাজির থাকার কথা।

সূত্রের খবর, সিবিআই, ইডি এবং সিআরপিএফ-এর দু’জন করে প্রতিনিধি এই দলে রয়েছেন। সিবিআই-এর ব্যাঙ্ক দুর্নীতি সংক্রান্ত শাখার প্রধান সারদা রাউতও টিমের অন্যতম সদস্য। পিএনবি দুর্নীতির তদন্তের সময় তিনি আগাগোড়া যুক্ত ছিলেন৷ এবার তাঁকে ফেরার ব্যবসায়ীকে ঘরে আনার মিশনেরও দায়িত্ব নিতে হচ্ছে। সরকারি সূত্র জানাচ্ছে, সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে যে জেট বিমানে প্রতিনিধিরা গেছেন, তাতেই চোকসিকে আনা হবে। তারপর দিল্লি অবতরণের সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে গ্রেফতার করা হতে পারে।

কিন্তু পথের কাঁটা বুধবারের শুনানি। সেদিন মেহুলের আইনজীবী তাঁর ডোমিনিকায় হাজির হওয়ার কোনও নয়া তত্ত্ব দাঁড় করাতে পারলে তদন্তকারী দলের যাবতীয় উদ্যোগ মাঠে মারা যাওয়ার জোরালো সম্ভাবনা।

ঋণখেলাপিদের তালিকায় নাম ওঠার পর থেকেই ফেরার পিএনবি কেলেঙ্কারির মূল চক্রী মেহুল চোকসি। পরে জানা যায়, ২০১৮ সালে তিনি অ্যান্টিগুয়ার নাগরিকত্ব নিয়েছেন। সম্প্রতি সেদেশ থেকে কিউবা পালানোর চেষ্টা করেন চোকসি। যেহেতু কাস্ত্রোর দেশে প্রত্যর্পণের কোনও আইন নেই, তাই সেখানেই আস্তানা পাতার পরিকল্পনা ছিল। কিন্তু বান্ধবী সেজে পুলিশ দলের সঙ্গে হাত মেলানো এক মহিলা তাঁর প্ল্যান ভেস্তে দেন। যাত্রাপথে ছোট্ট দ্বীপ ডোমিনিকায় ধরা পড়েন মেহুল। এরপর সেখানকারই এক জেলে তাঁকে আটক করা হয়।

অ্যন্টিগুয়া প্রশাসন ইতিমধ্যে হিরে ব্যবসায়ীর দায়িত্ব নিতে অস্বীকার করেছে। সেদেশের প্রধানমন্ত্রী গ্যাস্টন ব্রাউনি জানান, চোকসিকে ভারতেই ফেরানো হোক। যদিও পুরোটাই ডোমিনিকার আদালতের উপর নির্ভর করছে। বুধবার পর্যন্ত প্রত্যর্পণের বিষয়টি স্থগিত রাখা হয়েছে। যদিও সেদিনই আদালতে হাইভোল্টেজ শুনানি রয়েছে।

You might also like