Latest News

বিজয় দিবসে কেন ‘বাদ’ ইন্দিরা? ‘নারীবিদ্বেষী’ বিজেপিকে তোপ প্রিয়ঙ্কা, রাহুলের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ১৯৭১ এর যুদ্ধে (1971 war) পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের ঐতিহাসিক জয়ের ৫০ তম বর্ষপূর্তি হচ্ছে সাড়ম্বরে। বৃহস্পতিবারের বিজয় দিবস উদযাপনে আয়োজনের ত্রুটি নেই। সেদিনের সেই সংগ্রামের ফসল বাংলাদেশ সৃষ্টি। ভারতীয় সেনাবাহিনীর কাছে পাক সেনার শীর্ষকর্তা যখন আত্মসমর্পণ করছেন, তখন দেশে পূর্ণ আধিপত্য নিয়ে শাসন করছেন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী (indira gandhi)। কিন্তু সেই ইন্দিরাকেই কেন্দ্রের নরেন্দ্র মোদীর বিজেপি-এনডিএ সরকার আজকের দিনে উপেক্ষা করেছে (omission) বলে অভিযোগ তুলে তীব্র ক্ষোভ জানালেন প্রিয়ঙ্কা গান্ধী বঢরা, রাহুল গান্ধী (priyanka) (rahul)।

কংগ্রেস সাধারণ  সম্পাদকের ট্যুইট, আমাদের প্রথম ও দেশের একমাত্র মহিলা প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীকে নারীবিদ্বেষী (mysogynist) বিজেপি সরকারের বিজয় দিবস উদযাপন থেকে বাদ দেওয়া হচ্ছে। যেদিন তিনি ভারতকে জয়ের নেতৃত্ব দিয়ে বাংলাদেশকে মুক্ত করেছিলেন, তার ৫০ বছর পূর্তির দিনেই এটা হচ্ছে! নরেন্দ্র মোদীজী, আপনার নরম নরম কথা মহিলারা বিশ্বাস করে না। আপনার পিঠ চাপড়ানো মানসিকতা গ্রহণযোগ্য নয়। সময় হয়েছে, মহিলাদের তাদের পাওনাটুকু দিন!

ট্যুইটের সঙ্গে প্রিয়ঙ্কা চারটে সাদা কালো ছবি পোস্ট করেছেন। একটিতে দেখা যাচ্ছে, ইন্দিরা এক জখম জওয়ানকে দেখছেন, আরেকটিতে সশস্ত্র বাহিনীর অফিসারদের বৈঠক করছেন।

রাহুল ট্যুইট  করেন, ইন্দিরা দেশের জন্য ৩২টা গুলি খেয়েছিলেন, কিন্তু দিল্লিতে ১৯৭১ এর যুদ্ধের বর্ষপূর্তির সরকারি অনুষ্ঠানে তাঁর নামটা পর্যন্ত উঠল না! কিন্তু যে পরিবারগুলির দেশের জন্য কোনও অবদানই নেই, তারা এটা বুঝবে না।

সংসদের দুই কক্ষেই ৭১ এর যুদ্ধের শহিদদের পাশাপাশি বাংলাদেশের স্বাধীনতার জন্য লড়াই করা লোকজনকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। কিন্তু ইন্দিরার কোনও উল্লেখ সেখানে ছিল না। লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা তাঁদের অবদান ‘আগামী প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করে যাবে’ বলে মন্তব্য  করেন। ভারতীয় সেনা জওয়ানদের ‘অসীম সাহসে’র প্রশংসা করেন রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডু।

রাজনৈতিক মহলের অভিমত, উত্তরপ্রদেশ, পাঞ্জাবে কংগ্রেসের ঘুরে দাঁড়ানোর জন্য মহিলা ভোটকে টার্গেট করেছেন প্রিয়ঙ্কা। উত্তরপ্রদেশে বিজেপি শাসনে নারী নিরাপত্তার বেহাল দশার অভিযোগ  তুলে নিশানা করছেন গেরুয়া শিবিরকে।  গত সপ্তাহে কংগ্রেসের তরফে মহিলা ম্যানিফেস্টো প্রকাশ করেছেন তিনি যাতে বিনামূল্যে এলপিজি সরবরাহ, মেয়েদের নগদ অর্থ, সংসদ সহ যাবতীয় প্রশাসনিক কাঠামোয় মেয়েদের প্রতিনিধিত্ব বাড়াতে লড়াইয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি। সেই দৃষ্টিকোণ থেকেই বিজেপিকে ‘নারীবিদ্বেষী’ তকমা দিলেন তিনি।

 

You might also like