Latest News

শিখর ছোঁয়ার যন্ত্রণা থেকে মুক্তি পেতেই আত্মহত্যা, পরপর অভিনেত্রী-মডেলের মৃত্যুতে মন্তব্য নুসরতের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গত ১২ দিনে তিন-তিন জন মডেল-অভিনেত্রীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হল কলকাতায়। ১৫ মে গড়ফার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় পল্লবী দে-র দেহ। পরশু, বুধবারই নাগেরবাজারের ফ্ল্যাটে ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয় বিদিশা দে মজুমদারের। আজ, শুক্রবার সাতসকালে খবর আসে পাটুলির বাড়িতে আত্মহত্যা করেছেন মঞ্জুষা নিয়োগী। পরপর তিনটি এমন মৃত্যুর ঘটনা যেন থমকে দিয়েছে টলি-পাড়াকে।

অভিনেত্রী ও সাংসদ নুসরত জাহান (Nusrat Jahan) এ বিষয়ে প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে আজ জানান, দ্রুত শিখরে পৌঁছানোর উচ্চাকাঙ্ক্ষা থেকেই মানসিক যন্ত্রণা বাড়ছে, এ জন্যই মৃত্যু হচ্ছে অভিনেত্রী ও মডেলদের।

আজ বসিরহাটের এক নম্বর ব্লকে সোলাদানা বাজারে রক্তদান শিবিরের একটি অনুষ্ঠানে এসেছিলেন নুসরত। সেখানেই তাঁকে প্রশ্ন করা হয় মর্মান্তিক এই ঘটনা নিয়ে। সেখানেই তিনি বলেন, “কয়েক দিনের মধ্যে এভাবে নতুন প্রজন্মের অভিনেতা-মডেলদের মৃত্যু রীতিমতো দুঃখজনক। এইরকম কাজ যেন কেউই না করে, ভগবানের কাছে প্রার্থনা করি।”

তিনি আরও বলেন, “ইদানীং একটি প্রবণতা দেখা দিচ্ছে নতুন প্রজন্মের অভিনেত্রীদের, উচ্চকাঙ্ক্ষা ও বিলাসিতায় ডুবে থাকা। তাই নিজেদের শিখরে পৌঁছতে না পেরে মানসিক যন্ত্রণা পাচ্ছেন তাঁরা। তা থেকে মুক্তি পেতেই আত্মহত্যার পথ বেছে নিচ্ছেন, এটা খুবই দুঃখের বিষয়।”

তিন অভিনেত্রীর মৃত্যু নিয়ে চলছে তদন্ত ও চুলচেরা বিশ্লেষণ। পল্লবীর মৃত্যুতে উঠে এসেছে সম্পর্কের টানাপড়েনের তত্ত্ব। তাঁর লিভ ইন পার্টনার সাগ্নিক চক্রবর্তী এখন পুলিশি হেফাজতে। বিদিশার প্রেমিক অনুভব বেরার দিকেও উঠেছে অভিযোগের আঙুল। অন্যদিকে মঞ্জুষা নিয়োগীর বিয়ে হয়েছিল ছ’মাস আগে, তিনি নাকি বিদিশার মৃত্যুর পরেই ভেঙে পড়েছিলেন, সুইসাইড করতে চাইছিলেন বারবার, এমনটাই জানিয়েছে তাঁর পরিবার।

ফলে সব মিলিয়ে যেন এই অভিনয় জগতেরই নানা অন্ধকার দিক প্রকট হয়ে উঠছে। খ্যাতি ও জনপ্রিয়তার আলোয় সেসব দিকে তেমন নজর না যাওয়ার কারণেই এই মৃত্যুমিছিল, মনে করছেন অনেকেই।

‘আমি সুইসাইড করব, তোমার জামাইকে ফাঁসাব!’ কাল কেন মাকে এ কথা বলেছিলেন মঞ্জুষা

You might also like