Latest News

মাল নদীতে হড়পা বানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৮, এখনও চলছে উদ্ধারকাজ

দ্য ওয়াল ব্যুরো, জলপাইগুড়ি: মাল নদীতে (Mal River) প্রতিমা ভাসানের (idol immersion) সময় হড়পা বানে দুর্ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল আটজনে। প্রথমে দু’জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেলেও গতকাল অনেক রাত অবধি শেষে সাতজনের মৃত্যুর খবর মিলেছিল। এরপর বৃহস্পতিবার ভোরে ফের উদ্ধারকাজ শুরু হয়। তারপরই আরও একজনের মৃতদেহ মেলে। জলপাইগুড়ির (Jalpaiguri) এই ঘটনার বীভৎসতায় হতবাক সকলেই।

এদিন সকালে মৃত আটজনের পরিচয় প্রকাশ করেছে পুলিশ প্রশাসন। সেই তালিকায় বছর তেরোর নাবালিকা থেকে সত্তরোর্ধ্ব বৃদ্ধ রয়েছেন। এদের নাম, আনস পণ্ডিত (৮), ঊর্মি সাহা (১৩), শোভনদীপ অধিকারী (২০), সুস্মিতা পোদ্দার (২২), বিভাদেবী (২৮), রুমুর সাহা (৪২), শুভাশিস রাহা (৬৩) ও তপন অধিকারী (৭২)।

এদিকে গতকাল রাতেই এই ঘটনায় টুইট করে ক্ষোভপ্রকাশ করেছে প্রধানমন্ত্রীর দফতর। টুইটে লেখা, ‘‘জলপাইগুড়িতে প্রতিমা নিরঞ্জনের সময় যে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটেছে, তাতে আমি ক্ষুব্ধ। এই দুর্ঘটনায় যাঁরা এই দুর্ঘটনায় যাঁরা নিজেদের প্রিয়জনকে হারিয়েছেন তাদের প্রতি সমবেদনা রইল।’’

দশমীর রাতে ডুয়ার্সের মাল নদীতে প্রতিমা বিসর্জনের সময় ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটে। হড়পা বানে ভেসে যান অসংখ্য মানুষ। ঘটনায় ইতিমধ্যে দু’জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। নদীর মাঝে চরের মতো একটি জায়গায় সেইসময় আটকে পড়েন কমপক্ষে ৪০ জন মানুষ। এরপরই তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকাজ শুরু করে পুলিশ ও দমকলকর্মীরা।

নদীর পাড়ে থাকা প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছিলেন, বুধবার সন্ধ্যায় দুর্গাপ্রতিমার ভাসান হচ্ছিল মাল নদীতে। সেইসময়েই আচমকা বিপর্যয়টি ঘটে। কেউ কিছু বুঝে ওঠার আগেই নদীর জলে ভেসে যান বহু মানুষ। মাঝ নদীতে গিয়ে আটকে পড়ে গাড়িও। খবর পেয়েই তড়িঘড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছয় দমকল বাহিনী এবং পুলিশ। আটকে পড়া মানুষদের উদ্ধার করতে সেইসময় জেসিবি নামায় প্রশাসন।

জলপাইগুড়িতে ভাসানে ভেসে গেলেন অসংখ্য মানুষ, মাল নদীতে হড়পা বান, দেখুন ভিডিও

You might also like