Latest News

পাকিস্তানেই রয়েছে ২৬/১১-র মূলচক্রী সাজিদ মীর, আইএসআইয়ের ‘লেভেল সেভেন’ নিরাপত্তাও রয়েছে, অভিযোগ আমেরিকার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পাকিস্তানেই লুকিয়ে রয়েছে ২৬/১১ হামলার মূল চক্রী সাজিদ মীর। সম্প্রতি এমনটাই দাবি করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। আমেরিকা জানিয়েছে, পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই আশ্রয় দিয়েছে তাকে। তাদের পরামর্শেই একেবারে অন্তরালে চলে গিয়েছে সাজিদ মীর। দীর্ঘদিন কোনও নাশকতামূলক অভিযানে নাম জড়ায়নি তার। শুধু আশ্রয় নয়, আইএসআইয়ের তরফে ‘লেভেল সেভেন’ ক্যাটেগরির নিরাপত্তা বলয় সুনিশ্চিত করা হয়েছে সাজিদের জন্য। এমনকি মুম্বই হামলার পর প্লাস্টিক সার্জারি করে সাজিদ নিজের চেহারা বদলে নিয়েছে বলে খবর।

২০১২ সালে সাজিদ মীরকে ‘গ্লোবাল টেররিস্ট’-এর তকমা দেওয়া হয়েছে। বছর ৪৪-এর এই কুখ্যাত জঙ্গির মাথার দাম ৫০ লক্ষ মার্কিন ডলার। মার্কিন বংশোদ্ভূত কোলম্যান হেডলিকে মুম্বই হামলার আগে রেইকি করার জন্য ভারতে পাঠিয়েছিল এই সাজিদ মীর। শুধু তাই নয় ২৬/১১ হামলার মাথা সাজিদই চাবাদ হাউসের ইহুদি দম্পতিকে মেরে ফেলার জন্য লস্করের জঙ্গিদের ফোনে নির্দেশ দিয়েছিল। লস্কর-ই-তৈবার চিফ জাকিউর রহমান লকভির খাস লোক ছিল সাজিদ। ২০১০ সাল পর্যন্ত লকভির সমস্ত মিশনে সঙ্গী ছিল এই সাজিদ মীর। লকভির নিরাপত্তার দায়িত্বও ছিল সাজিদ মীরের কাঁধে। এমনকি আইএসআই এবং ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের ‘করাচি প্রোজেক্টে’ যুক্ত ছিল সে।

এ ধরনের এক কুখ্যাত জঙ্গিকে ‘লেভেল সেভেন’ ক্যাটেগরির নিরাপত্তা দিচ্ছে আইএসআই। যে নিরাপত্তা কোনও রাষ্ট্রের প্রধান বা গণ্যমান্য ব্যক্তিদের দেওয়া হয় থাকে, সেই সুবিধা এখন পাচ্ছে সাজিদ মীর। যদিও পাক ভূখণ্ডে যে এমন মোস্ট ওয়ান্টেড জঙ্গি লুকিয়ে রয়েছে তা মানতে নারাজ ইসলামাবাদ। ইমরান খানের সরকার সাফ উড়িয়ে দিয়েছে আমেরিকার এই অভিযোগ।

যদিও আমেরিকা তাদের ‘জঙ্গি কার্যকলাপ’ সংক্রান্ত বার্ষিক রিপোর্টে দাবি করেছে রাওয়ালপিন্ডিতে লুকিয়ে রাখা হয়েছে সাজিদকে। আদিয়ালা জেল রোডের গার্ডেন ভিলে হাউসিং সোসাইটিতে সেফ হাউসে রয়েছে সাজিদ মীর। অথবা লাহোরের এ-১ ফয়জল টাউনের ২৭ নম্বর সি ব্লকে রাখা হয়েছে তাকে। কিংবা লাহোরের গন্দা নালা এলাকাতেও লুকিয়ে রাখা হতে পারে।

You might also like