Latest News

Breaking : অনুদান মামলার ‘নিষ্পত্তি’, স্থগিতাদেশ রইল না : হাইকোর্ট

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পুজো কমিটিগুলিকে অনুদান দেওয়ার রাজ্য সরকারি সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হওয়া জনস্বার্থ মামলার কার্যত নিষ্পত্তি হয়ে গেল বুধবার। ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি দেবাশিস কর গুপ্ত এবং বিচারপতি শম্পা চৌধুরীর ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়ে দিল এই মামলায় হাইকোর্ট হস্তক্ষেপ করবে না। ডিভিশন বেঞ্চ এ-ও জানায়, বৃহস্পতিবার পর্যন্ত যে অন্তর্বর্তীকালীন স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছিল তা-ও তুলে নেওয়া হলো।

নেতাজি ইন্ডোরে পুজো কমিটিগুলির সঙ্গে বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ঘোষণা করেছিলেন রাজ্যের ২৮ হাজার পুজো কমিটিকে রাজ্য সরকার ১০ হাজার টাকা করে অনুদান দেবে। যার মোট অঙ্ক ২৮ কোটি টাকা। এরপরই গত ১৯ সেপ্টেম্বর সৌরভ দত্ত এবং দ্যুতিমান বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা করেন। সেই মামলার শুনানিতে প্রথমে গত মঙ্গলবার পর্যন্ত স্থগিতাদেশ দিয়েছিল ডিভিশন বেঞ্চ। মঙ্গলবারের শুনানিতে তুঙ্গে ওঠে দু’পক্ষের সওয়াল জবাব। অ্যাডভোকেট জেনারেল কিশোর দত্ত বলেন, “সংবিধানের ২৮২ ধারায়  জনস্বার্থে টাকা ব্যবহারে সরকারের একচ্ছত্র অধিকার আছে টাকা ।  কোর্ট এ ক্ষেত্রে হস্তক্ষেপ করতে পারে না।”  রাস্তা সংস্কারের জন্য এই ২৮ কোটি টাকা ব্যবহার করা হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি। সরকারের হয়ে আইনজীবী শক্তিনাথ মুখোপাধ্যায় বলেন, “কর দেন বলেই তাঁরা সরকারের টাকা খরচ নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারেন না। এর জন্য আলাদা পাবলিক অ্যাকাউন্ট কমিটি রয়েছে। অডিটর ও কন্ট্রোলার পরে ঠিক করবেন কী হয়েছে টাকা নিয়ে।” পাল্টা সওয়াল করেন মামলাকারীদের আইনজীবী বিকাশরঞ্জন ভট্টচার্য। তিনি বলেন, “বাজেটে বরাদ্দ টাকা খরচ নিয়ে প্রশ্ন তোলা যায় না। আর মুখ্যমন্ত্রী যখন ঘোষণা করেছেন তখন কোনও সরকারি অর্ডার ছিল না।”

দ্য ওয়াল পুজো ম্যাগাজিন ১৪২৫ পড়তে ক্লিক করুন

মঙ্গলবার দীর্ঘ শুনানির পর ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়ে দেয় মামলা স্থগিত থাকবে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত। সেই সঙ্গে ডিভিশন বেঞ্চ এ-ও জানায়, বুধবার শুনানি হবে এই মামলা গ্রহণযোগ্য কি না তা নিয়ে। এ দিন ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ স্থগিতাদেশ তুলে নিয়ে রাজ্যকে নির্দেশ দেয়, টাকা যাতে সঠিকভাবে খরচ হয় সে বিষয়টি যত্নের সঙ্গে দেখতে।

You might also like