Latest News

আনিস ‘হত্যাকাণ্ডে’ পুলিশের যুক্ত থাকার অভিযোগ উড়িয়ে দিলেন না ডিজি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে আনিস খান ‘হত্যাকাণ্ডের’ (Anis Khan Murder) তদন্তের জন্য বিশেষ তদন্তকারী দল বা সিট (SIT) গঠন করেছে পশ্চিমবঙ্গ পুলিশ (WB Police)। এদিন ভবানী ভবন থেকে রাজ্য পুলিশের ডিজি (DG) মনোজ মালব্য বললেন, আমতার আনিস খান কীভাবে মারা গেলেন তার নিরপেক্ষ তদন্ত করবে সিট। পাশাপাশি পুলিশকেও সন্দেহের তালিকা থেকে বাদ দিলেন না তিনি। বললেন, পুলিশও হতে পারে, অন্য কেউও হতে পারে, সবটাই তদন্ত করে দেখা হবে।

শহরের বহু বাসই মরণ ফাঁদ! স্বাচ্ছন্দ্য উধাও

আনিস খান ‘হত্যাকাণ্ডের’ নিরপেক্ষ তদন্তের আশ্বাস এদিন আগেই দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেছেন, যে বা যারা অন্যায় করেছে তারা অবশ্যই শাস্তি পাবে। এ ঘটনায় তিনিও মর্মাহত। মুখ্য সচিব, ডিজি ও সিআইডিকে নিয়ে স্পেশাল ইনভেস্টিগেটিভ টিম তথা সিট গঠন করা হয়েছে বলে জানান তিনি। তাদের ১৫ দিনের মধ্যে তদন্ত শেষ করে রিপোর্ট দিতে হবে।

এরপরই সোমবার বিকেলে ভবানী ভবন থেকে সাংবাদিক বৈঠক ডাকেন ডিজি। সিট গঠন করে তদন্ত শুরু হয়ে গেছে, একথাই জানান তিনি। সেই সঙ্গে বলেন, সিটের নেতৃত্বে থাকবেন এডিজি সিআইডি জ্ঞানবন্ত সিং এবং ডিআইজি সিআইডি (স্পেশাল) মিরাজ খালিদ। ইতিমধ্যেই তদন্ত করতে আমতার উদ্দেশে রওনা দিয়ে দিয়েছেন বিশেষ তদন্তকারী দলের সদস্যরা। ১৫ দিনের মধ্যে তাঁরা রিপোর্ট পেশ করবেন।

আলিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রনেতা আনিস খান ‘হত্যাকাণ্ডে’ প্রথম থেকেই সন্দেহের তির রয়েছে পুলিশের দিকে। আনিসের বাড়িতে যে চারজন আততায়ী এসেছিল তারা পুলিশের উর্দি পরেই ছিল বলে অভিযোগ। আনিসকে ছাদ থেকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। এই ঘটনায় পুলিশও যে জড়িত থাকতে পারে, সেই অভিযোগ একেবারে উড়িয়ে দিলেন না ডিজি মনোজ মালব্য। বললেন পুলিশও হতে পারে, অন্য কেউও হতে পারে। তদন্ত করার পর সেটা বোঝা যাবে।

এ প্রসঙ্গে বাম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, পুলিশই মেনে নিচ্ছে পুলিশ যুক্ত থাকতে পারে। ফলে এই তদন্তের কোনও এক্তিয়ার  নেই পুলিশের। যে অভিযুক্ত সেই যদি তদন্ত করে তবে তাতে নিরপেক্ষতা থাকতে পারে না। আমাদের দাবি আদালতের পর্যবেক্ষণে সিবিআই তদন্ত হোক আনিস হত্যাকাণ্ডের ঘটনায়।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like