Latest News

ভারতকে ৬৫০ কোটি টাকার মিলিটারি সরঞ্জাম ও পরিষেবা পাঠাতে তৈরি আমেরিকা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ভারতের সঙ্গে ক্রমেই গভীর হচ্ছে আমেরিকার সম্পর্ক। বিশেষ করে প্রতিরক্ষা খাতে দু’দেশ একে অন্যকে সাহায্য করছে। সম্প্রতি ভারতীয় সেনাবাহিনীকে প্রায় ৬৫০ কোটি টাকার মিলিটারি সরঞ্জাম ও পরিষেবা পাঠানোর বিষয়ে সম্মত হয়েছে আমেরিকা। তাদের সি- ১৩০জে সুপার হারকিউলিস মিলিটারি ট্রান্সপোর্ট এয়ারক্রাফটে করে এই সরঞ্জাম আসবে ভারতে।

আমেরিকার ডিপার্টমেন্ট অফ ডিফেন্সের অন্তর্গত ডিফেন্স সিকিউরিটি কো-অপারেশন এজেন্সি বা ডিএসসিএ-র তরফে জানানো হয়েছে, ভারত-মার্কিন সম্পর্ক আরও উন্নত করতে বিশেষ করে প্রতিরক্ষার খাতে ভারতের ভাল বন্ধু হয়ে ওঠার জন্যই এই চুক্তি করা হয়েছে। এতে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তার বিষয়টি আরও শক্তিশালী হবে। কারণ ইন্দো-প্যাসিফিক ও দক্ষিণ এশীয় এলাকায় শান্তি, স্থিতিশীলতা বজায় রাখা ও অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য অন্যতম গুরুত্ত্বপূর্ণ দেশ হল ভারত।

জানা গিয়েছে, এই চুক্তিতে ভারতের তরফে বিমানের যন্ত্রাংশ, ফায়ার এক্সটিংগুইশার কার্ট্রিজ, অ্যাডভান্সড র‍্যাডার ওয়ার্নিং রিসিভার শিপসেট, লাইটওয়েট নাইট ভিশন বাইনোকুলার, নাইট ভিশন গুগল, জিপিএস, ইলেক্ট্রনিক ওয়ারফেয়ার প্রভৃতি চাওয়া হয়েছে।

পেন্টাগনের তরফে জানানো হয়েছে, এই সরঞ্জামের মাধ্যমে ভারতের সেনাবাহিনী, বায়ুসেনা ও নৌসেনার অনেক সুবিধা হবে। শুধুমাত্র দেশের সীমান্তের সুরক্ষা নয়, মানবিকতার খাতিরে কোনও কাজ কিংবা উদ্ধারের কাজেও অনেক সাহায্য হবে তাদের।

এইসব সরঞ্জাম আমেরিকার সি- ১৩০জে সুপার হারকিউলিস মিলিটারি ট্রান্সপোর্ট এয়ারক্রাফটে করে ভারতে পাঠানো হবে বলে জানা গিয়েছে। এর সঙ্গে বাকি যে যে যন্ত্রাংশ দরকার তা ভারতেই তৈরি হয়। তাই সেগুলি পেতে ভারতীয় সেনার কোনও সমস্যা হবে না বলেই জানানো হয়েছে। পেন্টাগন জানিয়েছে, এই সরঞ্জাম ভারতে পাঠানোর ফলে আমেরিকার নিরাপত্তার ক্ষেত্রে কোনও সমস্যা হবে না। লকহিড-মার্টিন কোম্পানিকে এই যন্ত্রাংশ তৈরির বরাত দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়েছে।

২০১৬ সালে ভারতকে ‘প্রধান প্রতিরক্ষা সহযোগী’র তকমা দিয়েছিল আমেরিকা। দু’দেশের মধ্যে চুক্তি হয়, প্রতিরক্ষার ক্ষেত্রে একে অন্যকে সাহায্য করার। তারপর থেকে বিভিন্ন সময়ে একাধিক সামগ্রী আমেরিকার কাছ থেকে কিনেছে ভারতীয় সেনা। সম্পতি লাদাখে মাইনাস তাপমাত্রায় সেনাদের থাকার সুবিধার জন্য গরম কাপড় চেয়ে পাঠিয়েছিল ভারত। এবার আরও অনেক মিলিটারি সরঞ্জাম চেয়ে পাঠানো হল।

You might also like