Latest News

বিদ্যুতের বিল বকেয়া ১ কোটি টাকা! বিদ্যুৎমন্ত্রীর দাদার কারখানায় লাইন কাটল মধ্যপ্রদেশ সরকার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রায় এক বছর ধরে মেটানো হয় না বিদ্যুৎ বিল। জমতে জমতে বকেয়া হয়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় এক কোটি টাকা। শুধু একটা কারখানা নয়। মধ্যপ্রদেশের গ্বলিয়রে একাধিক পাথর কাটার কারখানায় বকেয়া রয়েছে লক্ষ লক্ষ টাকার বিদ্যুৎ বিল। সেরকমই একটি কারখানায় বিদ্যুৎ সংযোগ কাটার পর দেখা গেল, সেটি খোদ রাজ্যের বিদ্যুৎমন্ত্রীর দাদার। যা নিয়ে হইহই পড়ে গিয়েছে মধ্যপ্রদেশে। বিদ্যুৎমন্ত্রী প্রদ্যুমন সিং তোমার বলেছেন, “আইন সবার জন্য সমান।”

গ্বলিয়রে বিল্লওয়া এলাকার দাবরা সেক্টরে অনেক পাথর ভাঙার কারখানা রয়েছে। তারমধ্যেই একটি ঋতুরাজ স্টোন ক্রাশার কোম্পানি। ২০১৪ সালে এই কারখানা তৈরি করেন প্রদ্যুমন সিংয়ের দাদা দেবেন্দ্র সিং তোমার। দেখা গিয়েছে বিল জমতে জমতে ৯৫ লক্ষ টাকার বেশি হয়ে গিয়েছে। মধ্যপ্রদেশের রাজ্য বিদ্যৎ পর্ষদের কর্তারা জানিয়েছেন, সব কারখানা কর্তৃপক্ষকেই গত তিন মাস ধরে বকেয়া পরিষদের নোটিস দেওয়া হয়েছে। কিন্তু কেউ কর্ণপাত করেনি। শেষ পর্যন্ত এই পথে হাঁটতে হয়েছে বিদ্যুৎপর্ষদকে।

বিদ্যুৎ পর্ষদের দাবরা সেক্টরের ম্যানেজার সুনীল সিং সংবাদমাধ্যমকে বলেছেন, “কে কোন কারখানা চালান আমরা জানি না। তবে ওই সেক্টরে সব কারখানা মিলিয়ে ৪০০ কোটি টাকার বেশি বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। বারবার বলা হলেও গা করেনি কারখানাগুলি। যদিও বিদ্যুৎ সংযোগ কাটার ঘটনা নিয়ে সংবাদমাধ্যমে মুখ খোলেননি মন্ত্রীর দাদা।

শিবরাজ সিং চৌহান সরকারের বিদ্যুৎমন্ত্রী প্রদ্যুমন সিং তোমার বলেন, “এ কথা ঠিক যে ঋতুরাজ কারখানার মালিক আমার দাদা। কিন্তু সরকার যখন কোনও সিদ্ধান্ত নেয় তা সবার জন্য। এখানে আমার দাদা বলে আলাদা আইন হওয়া উচিত নয়।” তিনি আরও বলেন, “আমি নিজেও জানতাম না আমার দাদার কারখানার এত টাকা বিদ্যুৎ বিল বকেয়া রয়েছে। সংযোগ কাটার পরে সংবাদমাধ্যমের থেকেই জেনেছি।”

You might also like