Latest News

পাড়ার দোকান থেকে সেলুন, আরও কিছু ছাড় দিল কেন্দ্র, দেখুন গোটা তালিকা

কী কী ক্ষেত্রে দেওয়া হয়েছে ছাড় দেওয়া হয়েছে ও কী কী ক্ষেত্রে দেওয়া হয়নি, তার পুরো তালিকা দেখে নেওয়া যাক এক নজরে।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দেশজুড়ে করোনা মোকাবিলায় ৩ মে পর্যন্ত লকডাউন রয়েছে। কিন্তু তারমধ্যেই ধীরে ধীরে পরিষেবা স্বাভাবিক করার চেষ্টায় রয়েছে কেন্দ্র। একের পর এক ছাড় দেওয়া হচ্ছে বিভিন্ন বাণিজ্যিক পরিষেবাকে। শুক্রবার গভীর রাতে একটি নির্দেশিকা জারি করে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে বেশ কিছু ক্ষেত্রে ছাড় দেওয়া হয়েছে। পাড়ার দোকান থেকে শুরু করে সেলুন, দর্জির দোকান রয়েছে এই ছাড়ের আওতায়।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের এই নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, “যেসব দোকান শপস অ্যান্ড এস্ট্যাবলিশমেন্ট অ্যাক্টের আওতায় রেজিস্টারড, তারা যদি রেসিডেন্সিয়াল এলাকা ও বাজার এলাকায় হয়, তাহলে দোকান খোলা যাবে। কিন্তু শপিং মল বন্ধ থাকবে। ফলে সেখানে থাকা কোনও দোকান খোলা যাবে না। কোভিড ১৯ হটস্পট এলাকায় দোকান খোলার অনুমতি দেওয়া হয়নি। যেসব দোকান খোলার অনুমতি দেওয়া হয়েছে সেখানে কর্মচারীদের ৫০ শতাংশ কাজ করতে পারবে। তাঁদের মাস্ক পরে থাকতে হবে ও সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।”

আরও পড়ুন করোনাভাইরাস রুখতে বাড়িতে কত ডিগ্রিতে চালাতে হবে এসি, জানাল কেন্দ্র

কী কী ক্ষেত্রে দেওয়া হয়েছে ছাড় দেওয়া হয়েছে ও কী কী ক্ষেত্রে দেওয়া হয়নি, তার পুরো তালিকা দেখে নেওয়া যাক এক নজরে।

আজ থেকে কী কী দোকান খুলতে পারে

  • যেসব দোকান শপস অ্যান্ড এস্ট্যাবলিশমেন্ট অ্যাক্টের আওতায় রেজিস্টারড, তারা যদি রেসিডেন্সিয়াল এলাকা ও বাজার এলাকায় হয়, তাহলে দোকান খোলা যাবে। মিউনিসিপ্যালিটি ও মিউনিসিপ্যাল এলাকার বাইরের দোকানও খোলা যাবে।
  • পাড়ার মধ্যে থাকা সব দোকান খোলা যাবে।
  • গ্রামীণ এলাকাতেও রেজিস্ট্রেশন থাকা সব দোকান খোলা যাবে।
  • সেলুন খোলা যাবে। কিন্তু সেই সেলুনকে বাজার এলাকার বাইরে হতে হবে।
  • রেসিডেন্সিয়াল এলাকায় থাকা দর্জির দোকান খোলা যাবে।
  • যেসব দোকান খোলা যাবে সেখানে কর্মচারীদের মাত্র ৫০ শতাংশ একসঙ্গে কাজ করতে পারবেন।
  • শহর এলাকায় নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রীর বাইরে থাকা সব দোকান খোলা যাবে। কিন্তু সেগুলি যেন রেসিডেন্সিয়াল এলাকায় কিংবা বাজার এলাকার বাইরে থাকে।
  • মিউনিসিপ্যাল এলাকার মধ্যে থাকা বাজার খোলা যাবে।

এখনও কী কী ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে সেটাও দেখে নেওয়া যাক

  • শপিং মল ও সিনেমা হল বন্ধ থাকবে।
  • যে এলাকায় দোকান-পাঠ খুব ঘিঞ্জি সেখানে খোলা যাবে না।
  • জিম, স্পোর্টস কমপ্লেক্স, সুইমিং পুল, থিয়েটার, বার, অডিটোরিয়াম বন্ধ থাকবে।
  • মদের দোকান বন্ধ থাকবে।
  • বুটিকের দোকান, সেটা যদি মলে হয়, তাহলে তা বন্ধ থাকবে।

You might also like