Latest News

ভারতে ১৮ জুনের পর থেকে করোনা ৯৭% কমে যাবে, সুখবর দিল সিঙ্গাপুর ইউনিভার্সিটি

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনার তৃতীয় ঢেউ নিয়ে যখন চিন্তা চরমে, আশার খবর শোনালেন বিজ্ঞানীরা।

১৩১ টি দেশের ওপর সমীক্ষা চালিয়ে সিঙ্গাপুর ইউনিভার্সিটির গবেষকরা দাবি করেছেন, ভারতে ১৮ জুনের পর থেকে করোনা সংক্রমণ ৯৭ শতাংশ কমে যাবে। ৮ ডিসেম্বরের পর থেকে গোটা বিশ্ব করোনা-মুক্ত হতে পারে। এর আগে স্পেন ও ইতালির ক্ষেত্রেও এমনই সম্ভাবনার কথা বলেছিলেন সিঙ্গাপুর ইউনিভার্সিটির গবেষকরা, সেই ভবিষ্যদ্বানী মিলে গেছে। গত বছর স্পেন ও ইতালিতে করোনা সংক্রমণ যে হারে বাড়ছিল, এখন তা অনেক কম। তাই ভারতের ক্ষেত্রেও এই পূর্বাভাস মিলে যেতে পারে বলেই আশায় বুক বাঁধছেন গবেষকরা।

করোনা কার্ভের ওঠাপড়া জানতে ভারতে তৈরি গাণিতিক মডেল ‘সূত্র’ একই সম্ভাবনার কথা বলছে। করোনা সংক্রমণের হার কী গতিতে বাড়ছে বা কমছে, আক্রান্তের সংখ্যা কত, কোভিড পজিটিভিটি রেট তথা সংক্রমণের হার, এফেক্টিভ রিপ্রোডাকশন নম্বর (আর-নম্বর), অ্যাকটিভ কেসের হার ইত্যাদি ফ্যাক্টর দেখে একটি গাণিতিক মডেল তৈরি করা হয়েছে যার নাম ‘সূত্র’ (SUTRA) । এই মডেল বানিয়েছেন আইআইটি কানপুরের গণিতজ্ঞ মনীন্দ্র আগরওয়াল, আইআইটি হায়দরাবাদের গবেষক অধ্যাপক এম বিদ্যাসাগর এবং চিফ অব ডিফেন্স স্টাফের অধীনস্থ মেডিক্যাল টিমের সদস্য লেফটেন্যান্ট জেনারেল মাধুরী কানিৎকার। এই তিন বিশেষজ্ঞের টিম জানিয়েছে, মে মাসের মাঝামাঝি করোনা সংক্রমণের হার বৃদ্ধি বলে জানানো হয়েছিল, সেটা মিলে গেছে। দৈনিক সংক্রমণের হার ও ভাইরাস সক্রিয় রোগীর সংখ্যা দুই বেড়েছে। কিন্তু জুন মাস থেকে সংক্রমণের হার কমে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। গাণিতিক মডেলের হিসেব তেমনটাই বলছে।

এই মডেলের তিনটি প্যারামিটার আছে, কী কী–

প্রথমটা ‘বিটা’ বা ‘কনট্যাক্ট রেট’। আক্রান্ত রোগীরা ঠিক কতজনের সংস্পর্শে আসছে, একজনের থেকে সংক্রমণ কতজনের মধ্যে ও কী হারে ছড়াচ্ছে, সেই তথ্য পর পর সাজিয়ে অঙ্গ কষে একটা ডেটা বেরিয়েছে।

দ্বিতীয় ‘রিচ’   ও ‘এপসাইলন’ । দুটো গাণিতিক ফর্মুলা মেনে হিসেব করা হয়েছে। রিচ মানে হল সংক্রমণের হার বেড়ে কতজন মানুষ আক্রান্ত হচ্ছেন, সংক্রমণ কতটা সীমা অতিক্রম করছে সেই তথ্য। আর এপসাইলন হল কতজন রোগীকে শণাক্ত করা গিয়েছে আর কতজন রোগীকে ধরাই যায়নি, এই দুই হিসেবের অনুপাত। তাছাড়া দেশের এফেক্টিভ রিপ্রোডাকশন নম্বর তথা আর-নম্বরও গণনা করা হচ্ছে। সংক্রমণ কী পর্যায়ে ছড়াচ্ছে সেটাও হিসেব করা হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞের প্যানেল বলছে, সম্ভাবনা আছে জুন মাসের ১৮ তারিখ থেকে সংক্রমণের কার্ভ কমতে শুরু করবে। জুন মাসের শেষের দিকে দৈনিক সংক্রমণের হার ৯৭ শতাংশ কমে যাবে। এখন যেখানে লাখের বেশি নতুন সংক্রমণ ধরা পড়ছে, সে সময় কমে ১৫ হাজারে নেমে যাবে। একই সঙ্গে ভাইরাস সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও কমবে। আশা করা হচ্ছে অগস্টের ৩১ তারিখের মধ্যে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউয়ের ইতি হবে।

You might also like