Latest News

লকডাউন ২: কী করা যাবে, কী করা যাবে না, নতুন নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্র

আপাতত ৩ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে এই লকডাউনের মেয়াদ। এই পরিস্থিতিতে কী কী করা যাবে, আর কী কী করা যাবে না, তা নিয়ে নতুন নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনা মোকাবিলায় লকডাউনের মেয়াদ আরও বাড়িয়েছে কেন্দ্র। আপাতত ৩ মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে এই লকডাউনের মেয়াদ। এই পরিস্থিতিতে কী কী করা যাবে, আর কী কী করা যাবে না, তা নিয়ে নতুন নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। এই নির্দেশিকায় পাবলিক স্পেস, ওয়ার্ক স্পেস ও উৎপাদনকারী সংস্থাতে কী কী সতর্কতা নিতে হবে তা জানিয়ে দিয়েছে কেন্দ্র।

পাবলিক স্পেসে কী ধরনের সতর্কতা নিতে হবে

বর্তমানে করোনা সংক্রমণ রুখতে পাবলিক স্পেস বা প্রকাশ্যে সবথেকে বেশি সতর্ক থাকার নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্র। এই নির্দেশিকায় জানানো হয়েছে

  • রাস্তায় বেরলেই মুখ ঢাকতে হবে। কাজের জায়গাতেও যেন কোনওভাবেই নাক-মুখ খোলা না থাকে, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
  • যাঁরা প্রশাসনের সঙ্গে যুক্ত কিংবা পরিবহণের দায়িত্বে রয়েছেন, তাঁদের খেয়াল রাখতে হবে, যেভাবে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক নির্দেশ দিয়েছে, সেভাবে যেন সামাজিক দূরত্ব সবসময় বজায় থাকে।
  • প্রকাশ্যে কোথাও যাতে ৫ জনের বেশি জমায়েত না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
  • কোনও সামাজিক অনুষ্ঠান, যেমন বিয়ে কিংবা শ্রাদ্ধর ব্যাপারে জেলাশাসক নজর রাখবেন। তাই এই ধরনের কোনও অনুষ্ঠান হলে জেলাশাসককে খবর দিতে হবে।
  • প্রকাশ্যে থুতু ফেলা দন্ডনীয় অপরাধ বলে বিবেচনা করা হবে।
  • মদ, গুটখা কিংবা তামাক জাতীয় দ্রব্য বিক্রি করার ক্ষেত্রে কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন লকডাউনে মদ বিক্রির উপর পুরোপুরি নিষেধাজ্ঞা জারি করল মোদী সরকার

ওয়ার্ক স্পেস বা কাজের জায়গায় কী সতর্কতা নিতে হবে

  • প্রত্যেকটি অফিসে থার্মাল স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করতে হবে। সেইসঙ্গে পর্যাপ্ত পরিমাণে স্যানিটাইজারেরও ব্যবস্থা করতে হবে।
  • কাজের জায়গায় একটা শিফটের সঙ্গে অন্য শিফটের অন্তত ১ ঘণ্টা পার্থক্য থাকতে হবে। লাঞ্চের সময়েও যাতে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
  • ৬৫ বছরের বেশি বয়সের বৃদ্ধ ও যাঁদের হৃদযন্ত্র, ফুসফুস বা শ্বাসকষ্টের সমস্যা রয়েছে, তাঁরা বাড়ি থেকে কাজ করলেই ভাল।
  • সরকারি ও বেসরকারি ক্ষেত্রের কর্মচারীদের আরোগ্য সেতু অ্যাপ ব্যবহার করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।
  • প্রত্যেকটি শিফটের আগে কাজের জায়গা যাতে ভাল করে স্যানিটাইজ করা হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
  • বেশি কর্মীদের নিয়ে বৈঠক এড়াতে হবে।

আরও পড়ুন লকডাউনে যত্রতত্র থুতু-কফ-পিক ফেলা শাস্তিযোগ্য অপরাধ, কোভিড ম্যানেজমেন্ট গাইডলাইনে কড়া নির্দেশ কেন্দ্রের

উৎপাদনকারী সংস্থাতে কী সতর্কতা নিতে হবে

  • মাঝেমধ্যেই কারখানা পরিষ্কার করতে হবে। কর্মীদের নির্দেশ দিতে হবে মাঝেমধ্যেই হাত ধোয়ার।
  • কোনওভাবেই যেন এক শিফটের সঙ্গে অন্য শিফট মিলে না যায়। লাঞ্চের সময়েও যাতে ক্যান্টিনে সামাজিক দূরত্ব বজায় থাকে সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।
  • যাতে কর্মীরা নিজেদের ও পরিবারের শরীর ভাল রাখেন, সেই ব্যাপারে তাঁদের ট্রেনিং দিতে হবে।

You might also like