Latest News

করোনায় মৃতের তথ্যে সরকারের সঙ্গে গরমিল, সরানো হল দিল্লির হাসপাতালের ডিরেক্টরকে

ডক্টর জে সি পাস্সিকে সরিয়ে দেওয়ার কারণ হিসেবে অবশ্য এই হিসেবে গরমিলের কথা স্বীকার করা হয়নি সরকারের তরফে। এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ডক্টর পাস্সির বয়স ৬২ বছরের বেশি। এই বয়সে তাঁকে ডিরেক্টর হিসেবে নিযুক্ত করার কারণ জানতে চেয়েছিল কেন্দ্র। তাই তাঁকে সরানো হয়েছে। এর সঙ্গে মৃত্যুর সংখ্যায় গরমিলের কোনও সম্পর্ক নেই।

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনা সংক্রামিত হয়ে মৃত্যুর সংখ্যায় সরকারের সঙ্গে গরমিল হচ্ছে হাসপাতালের। এই ঘটনা সামনে আসার পরেই সরিয়ে দেওয়া হল দিল্লির লোক নায়ক হাসপাতালের ডিরেক্টর ডক্টর জে সি পাস্সি‌কে। মেডিসিন বিভাগের ডক্টর সুরেশ কুমারকে নতুন ডিরেক্টর করা হয়েছে।

কয়েক দিন আগেই এই ঘটনা সামনে আসে। ৬ মে পর্যন্ত দিল্লি সরকারের বুলেটিনে জানানো হয়, রাজধানীতে করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ৬৬ জনের। তার মধ্যে লোক নায়ক হাসপাতালে ৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। অন্যদিকে ৬ মে পর্যন্ত হাসপাতালের রিপোর্টে জানানো হয় ৪৭ জনের মৃত্যু হয়েছে কোভিড সংক্রমণে। এই ঘটনা সামনে আসার পরেই হইচই পড়ে যায়।

বুধবার কেজরিওয়াল সরকারের বুলেটিনে জানানো হয় দিল্লিতে করোনায় মৃত্যু হয়েছে ১০৬ জনের। কিন্তু রাজধানীর চারটি কোভিড ১৯ হাসপাতালের রিপোর্টে মৃত্যুর সংখ্যা দেখানো হয় ১৭৩। তারপরেই সরিয়ে দেওয়া হয় ডক্টর জে সি পাস্সিকে। তিন সদস্যের একটি অডিট কমিটি তৈরি করে দিল্লি সরকার। কী ভাবে এই হিসেবে গরমিল হল তা খোঁজার দায়িত্ব দেওয়া হয় তাঁদের।

ডক্টর জে সি পাস্সিকে সরিয়ে দেওয়ার কারণ হিসেবে অবশ্য এই হিসেবে গরমিলের কথা স্বীকার করা হয়নি সরকারের তরফে। এক আধিকারিক জানিয়েছেন, ডক্টর পাস্সির বয়স ৬২ বছরের বেশি। এই বয়সে তাঁকে ডিরেক্টর হিসেবে নিযুক্ত করার কারণ জানতে চেয়েছিল কেন্দ্র। তাই তাঁকে সরানো হয়েছে। এর সঙ্গে মৃত্যুর সংখ্যায় গরমিলের কোনও সম্পর্ক নেই।

আরও পড়ুন আসানসোল হাসপাতালে ৫ দিন ধরে পড়ে করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃতার দেহ! রিপোর্ট আসেনি এখনও

৪ মে ডক্টর পাস্সির নিযুক্তি নিয়ে দিল্লি সরকারের কাছে জবাবদিহি চায় কেন্দ্র। ৬২ বছরের বেশি বয়স্ক কাউকে প্রশাসনিক পদে কেন বসানো হয়েছে তা জানতে চাওয়া হয়। ২০১৮ সালে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে স্পষ্ট জানানো হয়েছিল, ৬২ বছরের বেশি কাউকে প্রশাসনিক পদে বসানো যাবে না। তিনি চাইলে ৬৫ বছর পর্যন্ত চিকিৎসা পরিষেবা দিতে পারেন।

কেন্দ্রের নির্দেশিকার পরেও মার্চ মাসের শেষে কোভিড সংক্রমণের মোকাবিলার জন্য অভিজ্ঞ ডক্টর পাস্সিকে লোক নায়ক হাসপাতালের ডিরেক্টর হিসেবে নিযুক্ত করে কেজরিওয়াল সরকার। দিল্লিতে করোনা সংক্রামিতদের জন্য সবথেকে বড় হাসপাতাল এই লোক নায়ক হাসপাতাল। কিন্তু দিল্লি সরকারের তরফে যতই ডক্টর পাস্সিকে সরানোর জন্য কেন্দ্রের নির্দেশিকার দোহাই দেওয়া হোক, দিল্লির চিকিৎসক মহলের জল্পনা করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেশি দেখানোতেই সরতে হল তাঁকে।

You might also like