Latest News

রাস্তায় পড়ে করোনায় মৃতের দেহ, ২ ঘণ্টা পরে দেখা অ্যাম্বুলেন্সের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনা আক্রান্ত হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে বাড়িতেই। মৃত্যুর আগেই পরিবারের লোক অ্যাম্বুলেন্সে খবর দেন। অথচ ওই ব্যক্তিকে বাড়ির বাইরে নিয়ে আসতেই তাঁর মৃত্যু হয়। ফলে রাস্তার উপরেই শোয়ানো থাকে মৃতদেহ। ওই অবস্থায় অবশেষে ২ ঘণ্টা পরে দেখা মেলে অ্যাম্বুলেন্সের।

ঘটনাটি ঘটেছে কর্নাটকের বেঙ্গালুরুতে। শুক্রবার নিজের বাড়িতেই করোনা আক্রান্ত হয়ে ৫৫ বছরের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়। তার আগেই বাড়ির লোক ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্সে খবর দেন। কিন্তু অ্যাম্বুলেন্স আসার আগেই ওই ব্যক্তির মৃত্যু হলে তাঁর দেহ বাইরে রাস্তার উপরে রেখে সেখানেই অপেক্ষা করতে থাকেন পরিবারের লোক। ২ ঘণ্টা পরে সেখানে অ্যাম্বুলেন্স আসে।

মৃতের স্ত্রী জানিয়েছেন, তাঁর স্বামীর শ্বাসকষ্টের সমস্যা ছিল। বাড়িতেই তাঁর চিকিৎসা চলছিল। ওই ব্যক্তির করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসার পরেই তাঁর শারীরিক অবস্থা আরও খারাপ হয়। শুক্রবার তাঁর স্বামীকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার জন্য অ্যাম্বুলেন্সে খবর দেওয়া হয়। কিন্তু অ্যাম্বুলেন্স আসতে দেরি হওয়ায় তাঁরা ঠিক করেন অন্য কোনও গাড়িতে করে ওই ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে যাবেন। বাড়ির বাইরে বের হতেই মৃত্যু হয় ওই ব্যক্তির।

পরিবারের অভিযোগ, ওই ব্যক্তির দেহ রাস্তাতেই শুইয়ে রেখে অ্যাম্বুলেন্সের অপেক্ষা করতে থাকেন তাঁরা। ২ ঘণ্টা পরে অ্যাম্বুলেন্স আসে। দেরির কারণ জিজ্ঞাসা করলে চালক বলেন রাস্তায় জ্যাম থাকায় দেরি হয়েছে তাঁর। এই ঘটনার ভিডিও স্থানীয় কেউ রেকর্ড করে সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশ করে দেন। তারপরেই সমালোচনা শুরু হয়।

এই ঘটনার পরে কর্নাটকের করোনা মোকাবিলার দায়িত্বে থাকা মন্ত্রী আর অশোক জানিয়েছেন, ঘটনার তদন্ত করা হচ্ছে। গাফিলতির প্রমাণ মিললে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বেঙ্গালুরু মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের কমিশনার অনিল কুমার এই ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেন, “অভিযোগ আসার পরেই তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। স্বাস্থ্য পরিষেবার উপর চাপ অতিরিক্ত থাকলেও এই ধরনের ঘটনা যাতে ভবিষ্যতে না হয়, সেদিকে নজর রাখা হবে।”

কর্নাটক তথা বেঙ্গালুরুতে বেড়েই চলেছে আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় বেঙ্গালুরুতে নতুন করে ৯৯৪ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর ফলে এই মুহূর্তে এই শহরে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৭১৭৩। এখনও পর্যন্ত ১০৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। বেঙ্গালুরুতে করোনা অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ৬২৯৭।

অন্যদিকে কর্নাটকে এখনও পর্যন্ত মোট করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ১৯,৭১০ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৯৩ জনের।

You might also like