Latest News

সংক্রমণ রুখতে হোম আইসোলেশনের নিয়মে কোনও গাফিলতি নয়, রাজ্যগুলিকে নির্দেশ কেন্দ্রের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছিল, মৃদু বা মধ্যম উপসর্গ থাকা রোগীরা চাইলে বাড়িতেই আইসোলেশনে থাকতে পারেন। কিন্তু সেক্ষেত্রে কিছু নিয়ম তাঁদের মেনে চলতে হবে। রাজ্যগুলিকে এই বিষয়ে নজর দেওয়ার কথাও বলা হয়েছিল। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে জারি করা এই নির্দেশিকা কিছু জায়গায় মানা হচ্ছে না বলে অভিযোগ। তাই হোম আইসোলেশনের নিয়ম ঠিকভাবে পালন হচ্ছে কিনা তা দেখার জন্য রাজ্যগুলিকে নির্দেশ দিল কেন্দ্র। কারণ একমাত্র কড়া ভাবে নিয়ম পালন করলেই সংক্রমণ দূর করা সম্ভব বলে জানিয়েছে কেন্দ্র।

শুক্রবার কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, গত ১০ মে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক হোম আইসোলেশন সংক্রান্ত কিছু নির্দেশিকা দেয়। সেখানে বলা হয়েছিল, যেসব আক্রান্তের উপসর্গ নেই, বা খুব কম, তাঁরা চাইলে বাড়িতেই আইসোলেশনে থাকতে পারেন। তবে সেক্ষেত্রে তাঁদের বাড়িতে শৌচাগারের সুবিধা- সহ আলাদা ঘর থাকতে হবে। সেইসঙ্গে তাঁকে দেখাশোনা করার জন্য লোক থাকতে হবে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে আরও জানানো হয়, আক্রান্তকে প্রতিদিন তাঁর শারীরিক অবস্থার কথা জেলা পর্যবেক্ষক দলকে জানাতে হবে, যাতে কোনও রকমের সমস্যা হলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে। সেইসঙ্গে বাড়িতে থাকা আক্রান্তের সব রকমের ব্যবস্থা ঠিক আছে কিনা ও আক্রান্ত সবকিছু মেনে চলছে কিনা সে ব্যাপারে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে বলেও জানানো হয়েছিল ওই নির্দেশিকায়।

কেন্দ্রের তরফে আরও জানানো হয়েছিল, সব নিয়ম মেনে তবেই কোনও আক্রান্তকে হোম আইসোলেশনে থাকার অনুমতি দেওয়া যেতে পারে। তবে প্রতিদিন তাঁর শারীরিক অবস্থার খবর রাখতে হবে পর্যবেক্ষক দলকে। সেইসঙ্গে নিয়ম মেনে আইসোলেশন থেকে বেরিয়ে আসার সিদ্ধান্তও প্রশাসনকে ঠিক করতে হবে বলে জানানো হয়েছিল।

শুক্রবার কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের যুগ্মসচিব লব আগরওয়াল সব রাজ্যগুলিকে একটি চিঠি দিয়ে জানিয়েছেন, “কেন্দ্রের কাছে খবর এসেছে কিছু রাজ্যে কয়েকটি ক্ষেত্রে কেন্দ্রের নির্দেশিকা অনুযায়ী হোম আইসোলেশনের নিয়ম মানা হয়নি। এই নিয়ম না মানা হলে হোম আইসোলেশনে থাকা ব্যক্তির থেকে ওই পরিবারের বা বাড়িতে থাকা বাকিদের মধ্যে সংক্রমণ ছড়াতে পারে। সেখান থেকে এলাকার অন্যদের মধ্যেও সংক্রমণ ছড়াতে পারে। তাই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফে সব রাজ্যগুলিকে জানানো হচ্ছে, হোম আইসোলেশনের ক্ষেত্রে কড়া নিয়ম মানা হোক। যে নির্দেশিকা কেন্দ্র দিয়েছে, তা ঠিকভাবে পালন হচ্ছে কিনা সেদিকে খেয়াল রাখা হোক। তবেই আমরা সংক্রমণ রুখতে পারব।”

এই চিঠিতে লব আগরওয়াল আরও বলেন, “আমরা কেন্দ্র- রাজ্য সবাই মিলে নমুনা পরীক্ষা, সংক্রমণের উৎস খোঁজা ও তারপর সংক্রামিত ব্যক্তিকে আলাদা করার কাজ করছি। যদি নির্দেশিকা না মানা হয়, তাহলে এই কাজের কোনও মানে থাকবে না। বিশেষ করে শহর এলাকায় হোম আইসোলেশনে থাকা আক্রান্তের থেকে পরিবারের ও এলাকার অন্যদের মধ্যে সংক্রমণ ছড়ানোর ঘটনা সামনে আসছে। এটা যেন কোনও মতেই না হয়। তাই এই নির্দেশিকা সব রাজ্যকে কড়া ভাবে মেনে চলতে হবে।”

You might also like