Latest News

পুকুরে পড়েছিল বিদ্যুতের তার, স্নান করতে নেমে নিমেষেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত ৪ কিশোর

দ্য ওয়াল ব্যুরো: পুকুরে স্নান করতে নেমে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মৃত্যু হয়েছে চার কিশোরের। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর প্রদেশের সম্বল জেলায় পেটিয়ান গ্রামে। পুলিশ জানিয়েছে, ওই চারজন স্নান করতে নামা পরেই কোনও ভাবে পুকুরে বিদ্যুতের তার এসে পড়ে। আর তাতেই ইলেকট্রিক শক লেগে চারজনেরই মৃত্যু হয়েছে।

পুলিশ জানিয়েছে, ওই পুকুরের পাশেই ছিল একটি ট্রান্সফরমার। আর সেখান থেকেই ঝুলছিল বিদ্যুতের তার। কোনওভাবে অসাবধানতায় ওই তার জলে পড়ে যায়। সে সময় লাইনে কারেন্ট চালু ছিল। কিছু বুঝতে না পেরেই স্নান করতে পুকুরে নামে ওই চার কিশোর। কিন্তু ততক্ষণে সারা জলে ছড়িয়ে পড়েছে কারেন্ট। তাই জলে পা দিয়েই হাই ভোলেটেজের শক লাগে বাচ্চাদের। অজ্ঞান হয়ে যায় তারা।

সেই সময় পুকুরের পাশ দিয়েই ক্ষেত থেকে ফিরছিলেন এক চাষি। চারটে ছেলেকে ওভাবে জলের মধ্যে পড়ে থাকতে দেখে সন্দেহ হয় তাঁর। ছুটে গিয়ে গ্রামবাসীদের খবর দেন ওই কৃষক। তড়িঘড় ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন গ্রামবাসীরা। তাঁদের মধ্যেই কেউ খেয়াল করেন যে জলে বিদ্যুতের তার পড়েছে। ট্রান্সফরমারের কারেন্ট বন্ধ করা হয়। চারজন কিশোরকে উদ্ধার করে নিয়ে যাওয়া হয় স্থানীয় হাসপাতালে। সেখানেই তাঁদের মৃত বলে ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা।

পুলিশ জানিয়েছে মৃত চারজনের নাম বিষ্ণু (১১), শিবম (৭), ধর্মবীর (১১) এবং গণেশ (১১)। এদের মধ্যে বিষ্ণু এবং শিবম দুই ভাই। এই ঘটনায় বিদ্যুৎ বিভাগের উপর অভিযোগ এনেছেন গ্রামবাসীরা। ক্ষোভে ফেটে পড়েছে গোটা গ্রাম। পরিস্থিতি সামাল দিতে গ্রামে মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশবাহিনী। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, বিদ্যুৎ বিভাগের অসাবধানতার জন্য মাশুল গুনতে হয়েছে ওই চার কিশোরকে। দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভেও সামিল হন তাঁরা। পুলিশ জানিয়েছে, গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

জেলাশাসক অবিনাশ কৃষন সিং জানিয়েছেন, গোটা ঘটনার তদন্তের দায়িত্বভার দেওয়া হয়েছে উপ বিভাগীয় জেলাশাসক দীপেন্দ্র যাদবকে। তিনদিনের মধ্যে তাঁকে রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে। এর পাশাপাশি বিদ্যুৎ বিভাগের আধিকারিক এক ইঞ্জিনিয়ার ডি এস শর্মাও আলাদা করে এ বিষয়ে তদন্ত করে রিপোর্ট জমা দেবেন।

You might also like