Latest News

গর্ভবতীদের জন্য নয় মলনুপিরাভির, কাদের লাগবে গাইডলাইন দিলেন চিকিৎসকরা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: করোনার ক্যাপসুল মলনুপিরাভির সকলের জন্য নয়। এমনটাই জানালেন পশ্চিমবঙ্গ ও দিল্লির কয়েকজন বিশিষ্ট চিকিৎসক। ডাক্তারবাবুদের মত, শুধুমাত্র হাই-রিস্ক গ্রুপে থাকা অর্থাৎ সঙ্কটজনক করোনা রোগীদের চিকিৎসাতেই এই ক্যাপসুল খাওয়ানো যেতে পারে। ভ্যাকসিন নেননি যাঁরা তাঁদের ক্ষেত্রে এই ওষুধ প্রযোজ্য। তবে ভ্যাকসিন নেওয়া থাকলে এবং মলনুপিরাভিরের ট্রিটমেন্ট হলে তার প্রভাব কেমন হবে সে ব্যাপারে সঠিক তথ্য এখনও পাওয়া যায়নি।

কলকাতার জিডি হাসপাতাল ও ডায়াবেটিস ইনস্টিটিউটের ডাক্তার আদেশ সিং বলছেন, গর্ভবতী মহিলাদের এই ওষুধ খাওয়ানো যাবে না। তাছাড়া পরীক্ষায় দেখা গেছে, ভ্যাকসিন নেননি এমন করোনা রোগীর শারীরিক অবস্থা যদি সঙ্কটজনক হয় তখনই এই ওষুধের থেরাপি হতে পারে। এদিকে দেশের ৮০ শতাংশ মানুষই ভ্যাকসিন পেয়ে গিয়েছেন। তাই করোনা চিকিৎসায় সার্বিকভাবে ওই ওষুধ কতটা কার্যকরী সে নিয়ে সংশয় থেকেই যাচ্ছে। বৈজ্ঞানিক পরীক্ষাতেও এখনও নিশ্চিত তথ্য মেলেনি বলেই জানিয়েছেন তিনি।

মলনুপিরাভির হল অ্যান্টি-ফ্লু ড্রাগ। দেশের ৩০টি কোম্পানি এই ওষুধ তৈরি করে। মলনুপিরাভিরের নানা গুণ আছে। করোনা প্রতিরোধেও কার্যকরী হচ্ছে বলে দাবি করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাসের প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহার করা হয় মলনুপিরাভির। আর ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাসের সঙ্গে সার্স-কভ-২ ভাইরাসের বিস্তর মিল রয়েছে। ইনফ্লুয়েঞ্জার মতো করোনাও আরএনএ (রাইবোনিউক্লিক অ্যাসিড) ভাইরাস। আর যে কোনও সংক্রামক আরএনএ ভাইরাল স্ট্রেনকে নিষ্ক্রিয় করে দিতে পারে এই ওষুধ।

ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অব মেডিক্যাল রিসার্চের (আইসিএমআর) প্রধান ডা. বলরাম ভার্গব বলেছেন, এই ওষুধের কার্যকারিতা এখনও পুরোপুরি প্রমাণিত নয়। বিশে, করে গর্ভবতী মহিলাদের শরীরে এই ওষুধ নানারকম পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া তৈরি করতে পারে। অ্যাডভার্স সাইড এফেক্টস হতে পারে। ভ্রূণ নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনাও থাকতে পারে। তাই কোভিড চিকিৎসায় মলনুপিরাভিরের প্রয়োগ করার আগে ডাক্তারদের খুব ভালভাবে রোগীর শারীরিক অবস্থা পরীক্ষা করে নিতে হবে। সংক্রমণ মৃদু বা মাঝারি হলে মলনুপিরাভির খাওয়ানো যাবে না। কেবলমাত্র মরণাপন্ন রোগীদের ক্ষেত্রেই এই ওষুধ কার্যকরী হতে পারে বলে দাবি চিকিৎসকদের।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা সুখপাঠ               

You might also like