Latest News

বিধ্বংসী ভূমিধসের পর ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা, কেরলে একইদিনে মৃত কমপক্ষে ৩৫ জন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রথমে তুমুল বৃষ্টির জেরে ভূমিধস। তারপর ভয়াবহ বিমান দুর্ঘটনা। কেরলে একদিনে মৃত কমপক্ষে ৩৫ জন।

গতকাল অর্থাৎ শুক্রবার সকালে ইদুক্কি জেলার রাজামালাইয়ের কাছে বেলা ১১টা ৫০মিনিট নাগাদ ধস নামে। একটি চা-বাগানের কাছে ধস নামায় মাটির স্তূপের নীচে আটকে পড়েন টি-এস্টেটের কর্মীরা। কমপক্ষে ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ রয়েছেন ৫০ জনেরও বেশি। মৃত এবং আহতের সংখ্যা বাড়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

কেরলের লাগাতার অতি ভারী বৃষ্টি ফিরিয়ে আনছে গত দু’বছরের ভয়াবহ বন্যার পরিস্থিতি। ২০১৮ সালের অগস্ট মাসে বন্যার ভয়াল রূপ দেখেছিল কেরল। বন্যার জেরে মারা গিয়েছিলেন ৪৮৩ জন। গত বছরও একই ভাবে প্রবল বৃষ্টি ও লাগাতার ভূমিধসে বিপর্যস্ত হয়েছিল কেরল। এ বছরও নাগাড়ে বৃষ্টিতে বানভাসি উত্তর কেরলের একাধিক জেলা। ক্রমশ আতঙ্ক বাড়ছে দক্ষিণের রাজ্যে।

গত কয়েকদিনের লাগাতার অতি ভারী বৃষ্টির জেরে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে কেরলে। উত্তর কেরলের একাধিক জেলায় লাল এবং কমলা সতর্কতা জারি করেছে প্রশাসন। আইএমডি জানিয়েছে, রবিবার ৯ অগস্ট পর্যন্ত বৃষ্টি চলবে কেরলে।

এদিকে শুক্রবার সকালের বিধ্বংসী ভূমিধসের আতঙ্কের রেশ কাটার আগেই এ দিন সন্ধ্যায় কোঝিকোড় আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের আগে ভেঙে পড়ে যাত্রী বোঝাই এয়ার ইন্ডিয়ার প্লেন। এই দুর্ঘটনায় এখনও পর্যন্ত ২ পাইলট-সহ ২০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। জানা গিয়েছে, গতকাল সন্ধ্যা ৭টা ৪০ মিনিট নাগাদ ঘটে এই দুর্ঘটনা।

কালিকটের ওই বিমানবন্দরে অবতরণের সময় প্রবল বৃষ্টিতে পিছলে গিয়ে ভেঙে দু’টুকরো হয়ে যায় এয়ার ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস বিমান আইএক্স- ১৩৪৪। এরপর কেবিনের দিকের অংশে আগুন ধরে যায়। ফলে দুই পাইলটেরই মৃত্যু হয়। তবে বিমানের বাকি অংশে আগুন ধরেনি।

বিমানবন্দর সূত্রে খবর, ওই বিমানে ১৭৪ জন যাত্রী, ১০ সদ্যোজাত, দু’জন পাইলট ও চারজন বিমানকর্মী ছিলেন। করোনা আবহে বিদেশে আটকে পড়া ভারতীয়দের দেশে ফেরানোর কাজ করছিল বিমানটি। জানা গিয়েছে, বন্দে ভারত মিশনের আওতায় চলছিল এই বিমানটি। দুবাই থেকে ১৯০ জনকে নিয়ে কেরলে ফিরছিল বিমানটি।

প্রায় তিন ঘণ্টার চেষ্টায় বিমান থেকে সবাইকে বের করা সম্ভব হয়। অন্তত ১১২ জন আহতকে কোঝিকোড় ও মালাপ্পুরম জেলার একাধিক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে খবর।

একইদিনে পরপর দুটি ভয়ঙ্কর দুর্ঘটনায় বিধ্বস্ত দক্ষিণের এই রাজ্য।

You might also like