Latest News

রিয়াকে ১০ ঘণ্টারও বেশি ম্যারাথন জেরা সিবিআইয়ের, আজ ফের তলব

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ১০ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে ম্যারাথন জেরার পর আজ ফের রিয়া চক্রবর্তীকে তলব করেছে সিবিআই। গত ১৯ অগস্ট বুধবার সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তভার সিবিআইয়ের হাতে দিয়েছে দেশের শীর্ষ আদালত। এরপর গত ২১ অগস্ট শুক্রবার থেকে তদন্ত শুরু করেছে তারা।

প্রসঙ্গত, গতকাল তদন্তের আটদিনের মাথায় প্রয়াত অভিনেতার বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে ডেকে পাঠায় সিবিআই। ডাকা হয় অভিনেত্রীর ভাই শৌভিক চক্রবর্তীকেও। জানা গিয়েছে, রিয়াকে ১০ ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন সিবিআইয়ের তদন্তকারী আধিকারিকরা। সূত্রের খবর, তাঁর বয়ান রেকর্ড করেছেন এসপি নুপুর প্রসাদ। সিবিআইয়ের দশ সদস্যের যে দল সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত করতে মুম্বই এসেছে নুপুর প্রসাদ তার পুরোধা।

শোনা গিয়েছে, গতকাল আলাদা ভাবে জেরা করা হয়েছে শৌভিককেও। মিলিয়ে দেখা হয়েছে যে ভাইবোনের বয়ানে কোনও তফাৎ রয়েছে কিনা। প্রসঙ্গত, গত পরশু বৃহস্পতিবারও রিয়ার বাবা ইন্দ্রজিৎ চক্রবর্তী এবং ভাই শৌভিককে জেরা করেছিল সিবিআই। মুম্বইয়ের সান্তাক্রুজ এলাকায় ডিআরডিও-র গেস্ট হাউসে রয়েছেন সিবিআইয়ের তদন্তকারী আধিকারিকরা। সেখানেই চলছে জিজ্ঞাসাবাদ পর্ব।

জানা গিয়েছে, আজ শনিবার সকাল সাড়ে দশটায় রিয়াকে ফের তলব করেছে সিবিআই। গতকালই বিভিন্ন সূত্র মারফত শোনা গিয়েছিল যে রিয়াকে বেশ কয়েকদিন ধরে জেরা করতে পারে সিবিআই। রিয়া এবং তাঁর পরিবার ছাড়াও এর মধ্যে সিবিআই সুশান্তের বান্দ্রার ফ্ল্যাটের রাঁধুনি নীরজ সিংকে বেশ কয়েকবার জেরা করেছে। জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে সুশান্তের বন্ধু, ক্রিয়েটিভ কনটেন্ট ম্যানেজার এবং ফ্ল্যাটের সঙ্গী সিদ্ধার্থ পিঠানিকেও। সুশান্তের মৃত্যুর সময় এই দু’জন ছিলেন বান্দ্রার ফ্ল্যাটে। এঁদেরকে সঙ্গে নিয়ে গিয়ে সুশান্তের ফ্ল্যাটে ক্রাইম সিন পুনর্নির্মাণ করেও দেখেছেন সিবিআইয়ের তদন্তকারী আধিকারিকরা।

গত ১৪ জুন বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় সুশান্ত সিং রাজপুতের দেহ। প্রাথমিক ভাবে ময়নাতদন্তের রিপোর্টে বলা হয় অভিনেতা আত্মহত্যা করেছেন। গলায় ফাঁস লেগে দমবন্ধ হয়ে সুশান্তের মৃত্যু হয়েছে। তবে একথা মানতে পারেননি অনেকেই। আমজনতা থেকে রাজনৈতিক মহলের একাংশ সেই সময় থেকেই সুশান্তের মৃত্যুর সিবিআই তদন্তের দাবিতে সরব হয়েছিলেন। অবশেষে বহু কাঠখড় পোড়ানোর পর গত ১৯ অগস্ট সুপ্রিম কোর্টে রায় দেয় যে সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত সিবিআই করবে।

প্রাথমিক ভাবে সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত শুরু করেছিল মুম্বই পুলিশ। তারপর অভিনেতার বাবা পাটনায় এফআইআর দায়ের করেন রিয়ার বিরুদ্ধে। এরপর তদন্তে নামে বিহার পুলিশ। তা নিয়ে বিস্তর জলঘোলা হয়েছে। শেষ পর্যন্ত তদন্তভার গিয়েছে সিবিআইয়ের হাতে। এর পাশাপাশি এই ঘটনায় তদন্ত করছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট এবং নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো। সুশান্তের মৃত্যুর ঘটনায় মাদক যোগের সূত্র পেয়েই নারকোটিক্স ব্যুরোকে তদন্তের আবেদন জানায় ইডি। সেই মতোই তদন্ত শুরু করেছে এনসিবি। রিয়ার বিরুদ্ধে এফআইআরও দায়ের করেছে নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো।

You might also like