Latest News

প্রাথমিকে ভুল প্রশ্ন: মানিককে তীব্র ভর্ৎসনা করে নিয়োগের নির্দেশ হাইকোর্টের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রাথমিকের ভুল প্রশ্ন মামলায় প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের (Primary Education Council) সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যকে সশরীরে আদালতে হাজিরের নির্দেশ দিয়েছিলেন কলকাতা হাইকোর্টের (Highcourt) বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায়। সোমবার সকাল ১১ টায় আদালতে এসে হাজিরা দেন মানিকবাবু। সেখানেই পর্ষদ সভাপতিকে তীব্র ভর্ৎসনা করে অবিলম্বে নিয়োগের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারপতি।

প্রাণঘাতী ডেঙ্গি ছড়াচ্ছে যোগী রাজ্যে, বাড়ছে শিশুমৃত্যু, আক্রান্ত ১২ হাজারের বেশি

এদিন বিচারপতি অভিজিৎ গঙ্গোপাধ্যায় পর্ষদ সভাপতির উদ্দেশে বলেন, বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায় গত দুবছর আগে নির্দেশ দেওয়া সত্ত্বেও কেন সেই নির্দেশ মানেননি? আপনি প্রাথমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি। আপনি যদি আদালতের নির্দেশ অমান্য করেন তাহলে পরে যাঁরা এই পদে আসবেন তাঁরা কি আগামী দিনে নির্দেশ মানবেন?

আদালত এদিন স্পষ্ট করে বলেছে, যাঁদের চাকরি দেওয়ার নির্দেশ বিচারপতি সমাপ্তি চট্টোপাধ্যায় দিয়েছিলেন সকলের নিয়োগ নিশ্চিত করতে হবে। এই নিয়ে কোনও টালবাহানা চলবে না। শুধু তাই নয়। সামগ্রিক ভাবে রাজ্যের স্কুলগুলিতে শূন্যপদ অবিলম্বে পূরণের কথা বলেছে আদালত।

এদিন আদালত মানিক ভট্টাচার্যের উদ্দেশে আরও বলে, মামলাকারীরা আপনার সন্তানের সমতুল্য। আপনার অনেক টাকা থাকতে পারে ,কিন্তু যাঁরা মামলা করেছেন তাঁরা গত দু’বছর ধরে কলকাতা হাইকোর্টে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন। বিষয়টা আপনার অবশ্যই নজর দেওয়ার প্রয়োজনীয়তা ছিল। কিন্তু আপনি নজর দেননি। হাইকোর্টে এরকম একাধিক মামলা রয়েছে এই বিষয়গুলো আপনি যদি বিবেচনা করেন এবং আপনি যদি সঠিক সময়ে সিদ্ধান্ত নেন তাহলে ভাল হয়।ভবিষ্যতে যে সমস্ত পদ খালি হবে এবং পদে নিয়োগ হবে সেগুলো যাতে অতি দ্রুত নিয়োগ হয় পাশাপাশি যাতে স্বচ্ছতার সাথে হয় আপনি ব্যক্তিগতভাবে সেদিকে নজর দেবেন আপনার কাছে এই প্রত্যাশা করে আদালত।

আদালতে মানিক ভট্টাচার্য জানান, “আমি অত্যন্ত দুঃখিত আমি সত্যিই তাদের পিতার সমতুল্য ।বিভিন্ন সমস্যার জন্য আমাদের সিদ্ধান্ত নিতে বিলম্ব হয় তবে আমরা চেষ্টা করি যাতে আবেদনকারীরা যাতে উপযুক্ত সূরাহা পান আমি ভবিষ্যতে সেদিকে অবশ্যই নজর রাখব।”

এই মামলার এদিনই নিষ্পত্তি করেছেন বিচারপতি।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like