Latest News

অভিনেত্রী শিমুর হত্যাকারী তাঁর স্বামীই! স্বীকারোক্তির কথা জানিয়ে দিল বাংলাদেশ পুলিশ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মঙ্গলবার সকাল সকাল ওপার বাংলায় তুলকালাম। দেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শিমুর বস্তাবন্দি মৃতদেহ উদ্ধার হয়েছে ঢাকায়। সেই ঘটনা এদিন নাটকীয় মোড় নিল বিকেলে। বাংলাদেশ পুলিশ জানিয়ে দিল অভিনেত্রীর স্বামীই তাঁকে খুন করেছেন। প্রাথমিকভাবে সেকথা স্বীকারও করেছেন শাখাওয়াত আলি নোবেল।

জানা গেছে গতকাল দুপুরেই ঢাকার কেরানীগঞ্জের হজরতপুর ব্রিজের কাছে আলিয়াপুর এলাকায় রাস্তার পাশ থেকে উদ্ধার হয় একটি বস্তা। তাতেই ছিল অভিনেত্রী রাইমা ইসলাম শিমুর দেহ! এই খবর জানাজানি হতেই তোলপাড় শুরু হয় ওপার বাংলায়। কে বা কারা এমন কাজ করল, কোমর বেঁধে তার তদন্তে নামে বাংলাদেশের পুলিশ।

শিমুর স্বামীকে জেরা করে জানা গেছে তিনিই অভিনেত্রীকে খুন করেছেন। এই কাজে তাঁর সহায়তা করেছেন তাঁরই বন্ধু ফরহাদ। শিমুর মৃতদেহ লুকিয়ে ফেলতে এই বন্ধুরই সাহায্য নিয়েছেন শাখাওয়াত আলি নোবেল।

মঙ্গলবার জেলা পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেন ঢাকা জেলা পুলিশ সুপার মহম্মদ মারুফ হোসেন সরদার। সেখানেই একথা জানান তিনি।

সূত্রের খবর, শিমুর এই পরিণতি দাম্পত্য কলহের জেরেই। স্বামী নোবেলের সঙ্গে প্রায়ই নাকি তাঁর ঝামেলা লেগে থাকত। সেই থেকেই এমন হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, শিমুর লাশ দু-টুকরো করা হয়েছিল। তারপর তা ভরা হয়েছিল দুটি আলাদা বস্তায়। লাশে গলার কাছে কাটা দাগ রয়েছে। তবে ঠিক কীভাবে এই খুন হয়েছে তা নিশ্চিত করে জানা যাবে ময়নাতদন্তের পরেই। পুলিশ আরও জানিয়েছে, রবিবার সকালবেলাই এই খুন হয়েছে। তারপর তাঁর স্বামী নিজেই থানায় গিয়ে নিখোঁজ স্ত্রীর জন্য জেনারেল ডায়েরি করেছিলেন। একদিন পর পাওয়া গেল অভিনেত্রীর মৃতদেহ। এই ঘটনায় স্তম্ভিত গোটা বাংলাদেশ।

You might also like