Latest News

সরি বিগ-বি, অমিতাভ বচ্চনের কাছে ক্ষমা চাইলেন শিল্পপতি আনন্দ মাহিন্দ্রা, কেন?

দ্য ওয়াল ব্যুরো: জনপ্রিয়তায় বিগ-বি-র হয়তো ধারে কাছেও নেই। তবে সোশাল মিডিয়া, বিশেষ করে টুইটারে শিল্পপতি আনন্দ মাহিদ্রা কম জনপ্রিয় নন। কারণ, তাঁর সাম্প্রতিক নানান টুইট শুধু মনোজ্ঞ নয়, মজারও বটে। তাতেই এক জন শিল্পপতি হয়েও সাধারণ মানুষের মনের কাছাকাছি পৌঁছে গিয়েছেন আনন্দ।

সোমবার সকালে এমনই একটি টুইট করে অমিতাভ বচ্চন তথা বিগ-বি-র কাছে ক্ষমা চেয়ে নিলেন আনন্দ মাহিদ্রা।
টুইটে তিনি লিখেছেন, “বিগ-বি-র কাছে ক্ষমা চেয়ে নিয়েই বলছি, এ সপ্তাহে একজনই বিগ-বি। তা হল বিগ বাজেট!” এ কথা বলে, মাহিন্দ্রা গ্রুপের চিফ ইকোনমিস্ট সচ্চিদানন্দ শুক্ল-র একটি টুইট কোট করেছেন আনন্দ মাহিন্দ্রা।

সচ্চিদানন্দ তাঁর সেই টুইটে লিখেছেন, কেন্দ্রে নতুন সরকারের প্রথম বাজেট নিয়ে সর্বস্তরে প্রত্যাশা বাড়ছে। মূল প্রশ্নই হল, দেশকে ফের বৃদ্ধির পথে চালিত করতে নতুন বাজেট কতটা কার্যকরী ভূমিকা নেবে। এই বাজেট কি কোনও অ্যানিমল স্পিরিট জাগিয়ে তুলতে পারবে বাজারে?

ষোলো আনা বাস্তব এই কথা। দ্বিতীয় বার কেন্দ্রে ক্ষমতায় এসে অর্থমন্ত্রী বদল করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। দেশে এই প্রথম পূর্ণ সময়ের জন্য একজন মহিলা অর্থমন্ত্রী হয়েছেন,-নির্মলা সীতারমন। আগামী ৫ জুলাই সংসদে বাজেট পেশ করবেন নির্মলা। তাঁর কাছে, যেমন শিল্পমহলের প্রত্যাশা রয়েছে, তেমনই আশা রয়েছে যুব সমাজের। কেন না, দেশে শিল্পোৎপাদনে বৃদ্ধির হার গত কয়েক বছরে যেমন কম ছিল, তেমনই কর্মসংস্থানের সে রকম কোনও সুযোগ সৃষ্টি হয়নি। আর্থিক বৃদ্ধির হারও কম। সব মিলিয়ে এক প্রকার নেতিবাচক পরিস্থিতি।

এই অবস্থায় শিল্প মহল যেমন সরকারের থেকে উৎসাহ বর্ধক পদক্ষেপ আশা করছে, পণ্য পরিষেবা কর-এর সরলীকরণের জন্য দাবি জানাচ্ছে, তেমনই অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের অনেকেই বলছেন, পরিকাঠামো খাতে বিপুল বিনিয়োগ প্রয়োজন। তা সরকারি স্তর থেকে হোক বা সরকারি-বেসরকারি যৌথ উদ্যোগে। তাতে বৃদ্ধির পথ যেমন প্রশস্ত হবে, তেমনই কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে, চাহিদা বাড়বে ও তার ফলে উৎপাদন বাড়বে।

You might also like