Latest News

বিদেশ থেকে ফিরলে সাত দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতেই হবে, নয়া নির্দেশিকা কেন্দ্রের

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বিদেশ ফেরত যাত্রীদের জন্য নয়া নির্দেশিকা জারি করল কেন্দ্রীয় সরকার। দেশে করোনা পরিস্থিতি উদ্বেগজনক। ওমিক্রনও বেড়ে চলেছে। তাই এমন সময় বাইরের দেশ থেকে এ দেশে এলে সাত দিনের কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক করল সরকার।

আন্তর্জাতিক যাত্রীদের জন্যই এই নয়া নিয়ম। কেন্দ্রের নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, বিদেশ ফেরত যাত্রীদের প্রথমে বিমানবন্দরেই কোভিড টেস্ট করাতে হবে। নমুনা সংগ্রহ করে রিয়েল টাইম আরটি-পিসিআর টেস্ট করা হবে। সেই টেস্টের রিপোর্ট দেখেই দেশে ঢোকার অনুমতি দেওয়া হবে।

রিপোর্ট নেগেটিভ এলে–

আরটি-পিসিআর টেস্ট রিপোর্ট নেগেটিভ এলে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হবে তবে সাত দিনের কোয়ারেন্টাইনে থাকতেই হবে। অষ্টম দিনে ফের আরটি-পিসিআর টেস্ট করাতে হবে।

রিপোর্ট পজিটিভ এলে–

আর রিপোর্ট পজিটিভ এলে আইসোলেশন ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে নমুনা সংগ্রহ করে জিনোম সিকুয়েন্সের জন্য পাঠানো হবে। এরপর কেন্দ্রের গাইডলাইন মেনে আইসোলেশনে থাকতে হবে যাত্রীদের।

আইসোলেশনের নিয়ম কী কী?

জিনোম সিকুয়েন্সের রিপোর্ট যতদিন না আসছে ততদিন যাত্রীদের আলাদা ঘর বা আইসোলেশন ওয়ার্ডে রাখা হবে। যদি সংক্রমণের সামান্য উপসর্গও থাকে, তাহলে কোভিড আইসোলেশন ওয়ার্ডে পাঠানো হবে।

কোভিড পজিটিভ যাত্রীদের জন্য আইসোলেশন ওয়ার্ড, টয়লেট ও বাথরুম সবই আলাদা থাকবে।

পিপিই পরে তবেই আইসোলেশন ওয়ার্ডে ঢুকতে পারবেন কেয়ার-গিভাররা। যাতে কোনওভাবেই সংস্পর্শ থেকে সংক্রমণ না ছড়ায়, তা খেয়াল রাখতে হবে।

১৪ দিন পরে ফের করোনা পরীক্ষা করা হবে। সেই রিপোর্ট নেগেটিভ হলে তবেই গন্তব্যে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হবে।

জিনোম সিকুয়েন্সের পর কোনও যাত্রীর নমুনায় ওমিক্রন ভ্যারিয়ান্ট (বি.১.১.৫২৯) ধরা পড়লে তাঁর জন্য আলাদা চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে। সংক্রমণ কমে গেলে ৪৮ ঘণ্টার ব্যবধানে দুটি রিয়েল টাইম আরটি-পিসিআর টেস্ট করা হবে। দুটি টেস্টের রিপোর্ট নেগেটিভ এলে তবেই গন্তব্যে যাওয়ার অনুমতি মিলবে।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকাসুখপাঠ

You might also like