Latest News

নব মহাকরণ আদালতের কাজের জন্য রেডি, ২৫ অগস্ট ‘চাবি’ দেবেন মুখ্যমন্ত্রী

রফিকুল জামাদার

চলতি মাসের ২৫ তারিখ নিউ সেক্রেটারিয়েট বিল্ডিং বা নব মহাকরণের (New Secretariat Building) একটা অংশ তুলে দেওয়া হবে হাইকোর্টকে। সেখানে বসবে আদালত। দ্য ওয়াল–এ এই খবর আগেই লেখা হয়েছিল। জানা গেছে, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতেই ওইদিন হস্তান্তর করা হবে নব মহাকরণের ব্লক বি–এর ৯ তলা বিল্ডিং।

রাইটার্স বিল্ডিংসে যখন সংকুলান হচ্ছিল না, তখন এই বাড়িটিতে আনা হয়েছিল বেশ কিছু সরকারি দফতর (New Secretariat Building)। বসতেন মন্ত্রীরাও। সেই বাড়িটিরই এবার অনেকটা জুড়ে আদালত বসবে। সরছে একাধিক দফতর।

নগর দায়রা আদালত তথা সিটি সিভিল কোর্ট থেকে শুরু করে বেশ কয়েকটি কোর্ট ঘিঞ্জি হয়ে রয়েছে। সেই কারণে প্রায় ৫০ হাজার বর্গফুট জায়গা প্রয়োজন। সংশ্লিষ্ট আদালতগুলির কিছু শাখার স্থানান্তর কার্যত জরুরি হয়ে পড়েছে। এবার সেগুলিকে আনা হবে নব মহাকরণে (New Secretariat Building)।

সরকারি স্তরে এ ব্যাপারে যে তৎপরতা শুরু হয়েছিল সেই খবর দ্য ওয়ালে সবার আগে লেখা হয়েছিল। ২৩ জুনের প্রতিবেদনে লেখা হয়েছিল, রাজ্যের মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী একটি বৈঠক করে নব মহাকরণের একতলা থেকে ন’তলা পর্যন্ত থাকা দফতরগুলির সঙ্গে কথাও বলেছেন। এর মধ্যে রয়েছে আবাসন, ক্রীড়া, সমবায়, পর্যটন, লেবার ট্রাইব্যুনাল। সেগুলি এবার অন্য ঠিকানায় যাচ্ছে।

উল্লেখ্য, বামফ্রন্ট আমলে রাজ্য সরকারের প্রায় সমস্ত সরকারি দফতর বসত মহাকরণে বা রাইটার্স বিল্ডিংসে। কিন্তু পরে কিছু দফতরের আধিকারিকদের জন্য স্থান সংকুলান না হওয়ায় সরকারি কাজে অসুবিধা দেখা দেয়। সেই সমস্যার সমাধানের জন্য তৈরি করা হয় নব মহাকরণ (New Secretariat Building)। সেখানে এক থেকে সাত তলা পর্যন্ত বসতেন একাধিক গুরুত্বপূর্ণ দফতরের কর্মীরা। কিন্তু আদালতের কাজের জন্য এবার সরানো হল সরানো হল বেশ ক’‌য়েকটি দফতর। জায়গা বাড়লে আদালতের কাজেও গতি আসবে বলে মনে করছেন আইনজ্ঞদের অনেকে।

নব মহাকরণে এবার ‘অর্ডার অর্ডার’, ৬টি ফ্লোর ফাঁকা করতে বলল নবান্ন

You might also like