Latest News

‘নয়া পাকিস্তান’ জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ‘নয়া অ্যাকশান’ নিয়ে দেখাক, কটাক্ষ ভারতের

দ্য ওয়াল ব্যুরো : শুক্রবারই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছিলেন, তিনি নয়া পাকিস্তান গড়তে চান। সেই পাকিস্তানে সন্ত্রাসবাদীদের স্থান নেই। একইসঙ্গে শোনা যায়, পাকিস্তানের বিভিন্ন প্রান্তে বেশ কয়েকটি জঙ্গি ঘাঁটি বন্ধ করে দিয়েছে পুলিশ। জঙ্গি সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত কয়েকজনকে গ্রেফতারও করা হয়েছে। এরপর শনিবার ভারতের বিদেশ মন্ত্রক থেকে বলা হল, যদি সত্যিই ‘নয়া পাকিস্তান’ তৈরি হয়, তাহলে জঙ্গিদের বিরুদ্ধেও ‘নয়া অ্যাকশান’ নিতে হবে। পর্যবেক্ষকদের মতে, ভারত যে ইমরানের কথায় এখনই বিশ্বাস করছে না, সেকথাই বুঝিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ইমরান জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন বলেছেন বটে, কিন্তু তাতে বিশ্বাস করছেন না অনেকেই। এর আগেও একাধিকবার পাকিস্তান বলেছে, সন্ত্রাসবাদীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কিন্তু বাস্তবে দেখা গিয়েছে, সন্ত্রাসবাদীরা রীতিমতো ঘাঁটি বানিয়ে বসে আছে পাকিস্তানে।

পর্যবেক্ষকদের মতে, কোনও বড় ধরনের জঙ্গি হানার পরে আন্তর্জাতিক মহল থেকে পাকিস্তানের ওপরে চাপ সৃষ্টি হয়। আমেরিকা, ব্রিটেন ও অন্যান্য শক্তিশালী দেশ পাকিস্তানকে অনুরোধ করে যাতে জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়। তখন পাকিস্তান লোকদেখানো ধরপাকড়ও করে। কিন্তু কিছুদিন পরেই ধৃতরা ছাড়া পেয়ে যায়।

২০০১ সালে ভারতের সংসদ ভবনে জঙ্গিরা হানা দেয়। তার পরে ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। আন্তর্জাতিক মহলের চাপে পাকিস্তান ঘোষণা করে, জঙ্গিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। কিন্তু তার পরেও জঙ্গি তৎপরতা কমার কোনও লক্ষণ দেখা যায়নি।

২০০৮ সালে জঙ্গিরা মুম্বইতে হানা দেয়। বহু লোক মারা যান। ফের আন্তর্জাতিক মহল থেকে পাকিস্তানকে বলা হয়, হামলার মূল চক্রী লস্কর ই তৈবা ও তার প্রধান হাফিজ মহম্মদ সৈদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। পাকিস্তানও বলে, আমরা ব্যবস্থা নিচ্ছি। কিন্তু এখনও সেখানে লস্কর শিবিরের অস্তিত্ব রয়েছে।

পুলওয়ামাতে জঙ্গি হানার পরেও ইমরান একই কথা বলছেন। সেজন্য এদিন বিদেশ মন্ত্রক থেকে কড়া বার্তা দেওয়া হয়েছে। বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রবীশ কুমার সাংবাদিক বৈঠক করে বলেছেন, ইমরান যদি সত্যিই নয়া পাকিস্তান বানাতে চান, তাঁর মনে যদি ‘নয়ি সোচ’ অর্থাৎ নতুন ভাবনা থাকে, তাহলে তা ‘নয়া অ্যাকশানের’ মাধ্যমে প্রকাশ পাবে। পাকিস্তানের মাটিতে যে জঙ্গিরা সক্রিয় তাদের বিরুদ্ধে তিনি নিশ্চয় ব্যবস্থা নেবেন।

আরও পড়ুন– জঙ্গিদের পাকিস্তানে ঘাঁটি বানাতে দেব না, এতদিন পরে বললেন ইমরান

পাকিস্তানের সেনাবাহিনীর মন্তব্য উল্লেখ করে রবীশ কুমার বলেন, তারা বলেছে সেদেশে জইশ ই মহম্মদ নামে কোন সংগঠনের অস্তিত্বই নেই। পর্যবেক্ষকদের মতে, এই মন্তব্য করে সেদেশের সেনাকর্তারা স্পষ্ট বুঝিয়ে দিয়েছেন, তাঁরা পুলওয়ামা কাণ্ডে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে রাজি নন।

You might also like