Latest News

‘দিদি ও দিদি!’ প্রধানমন্ত্রী একজন মুখ্যমন্ত্রীকে এভাবে ডাকেন! মোদীর নিন্দায় চিদম্বরম, কোভিড নিয়েও কটাক্ষ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: প্রায় প্রতিদিনই পশ্চিমবঙ্গে নিয়ম করে ভোটপ্রচারে আসছেন নরেন্দ্র মোদী। জেলায় জেলায় সমাবেশ করছেন বিজেপিকে নবান্নে ক্ষমতায় বসানোর লক্ষ্যে। তার মধ্যেই শনিবার সরকারি অফিসারদের সঙ্গে কোভিড-১৯ রিভিউ মিটিং করেন তিনি। সারা দেশে করোনাভাইরাস অতিমারী ভয়ঙ্কর চেহারা নিচ্ছে। গত চারদিন ধরে রোজ ২ লাখের ওপর নতুন কোভিড সংক্রমণ হচ্ছে। পরিস্থতি খতিয়ে দেখতেই মোদীর বৈঠক, যা নিয়ে তাঁকে কটাক্ষ করে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা কংগ্রেস সাংসদ পি চিদম্বরম ট্যুইট করলেন, পশ্চিমবঙ্গ জয় করে বিজেপির সাম্রাজ্যে ঢুকিয়ে নেওয়ার যুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছেন। তার মধ্যেও যে কোভিড নিয়ে কিছুটা হলেও সময় বের করতে পেরেছেন, এজন্য প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ।

 

মোদী প্রায় প্রত্যেক জনসভায় রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিদি ও দিদি বলে সম্বোধন করে বিতর্কে জড়িয়েছেন। যে টানে তিনি মমতাকে ডাকছেন, তাতে শ্লেষ, বিদ্রূপ মিশে আছে বলে অভিযোগ তৃণমূল সহ নানা মহলের। একই অভিমত চিদম্বরমেরও। তিনি বলেছেন, এভাবে কি প্রধানমন্ত্রী একজন মুখ্যমন্ত্রীকে সম্বোধন করতে পারেন! আমি তো ভাবতে পারি না, জওহরলাল নেহরু, মোরারজি দেশাই বা বাজপেয়ী ওভাবে কথা বলছেন!

 

আরেকটি ট্যুইটে চিদম্বরম বলেছেন, বেশিরভাগ হাসপাতালের দরজায় নো ভ্যাকসন বোর্ড ঝুলছে, আর কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রী হর্ষবর্ধন ভ্যাকসিন সরবরাহে কোনও ঘাটতি নেই বলে দাবি করছেন! চিদম্বরমের খোঁচা, মন্ত্রীর কথা বিশ্বাস করুন, ভ্যাকসিন, অক্সিজেন, হাসপাতালের শয্যা, ডাক্তার, নার্স, কিছুরই অভাব নেই, অভাব শুধুই রোগীর! কেন্দ্রীয় সরকারের হাতে যাবতীয় ক্ষমতা, কর্তৃত্ব থাকা সত্ত্বেও তারা যথেষ্ট সংখ্যায় কোভিড ১৯ ভ্যাকসিন উত্পাদন ও সরবরাহ সুনিশ্চিত করতে ব্যর্থ বলে অভিযোগ করেন তিনি। আজ দেশের সামনে যে বিপর্যয় এসেছে, সেজন্য একমাত্র দায়ী কেন্দ্রই, বলেন তিনি। ব্যাপক হারে ভ্যাকসিনের টীকাকরণই সংক্রমণ রোখা সম্ভব, কিন্তু ট্র্যাজেডি হল, ভ্যাকসিনের সরবরাহ কম, রাজ্যগুলির ভাঁড়ার ফুরিয়ে গিয়েছে বা যাচ্ছে বলে জানান চিদম্বরম।

You might also like