Latest News

অক্সিজেনের অভাবে একজনেরও মৃত্যু হয়নি, কেন্দ্রের সঙ্গে গলা মেলাল এই রাজ্যগুলোও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অক্সিজেনের অভাবে দেশে মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি, কেন্দ্রের এমন বক্তব্যের পরেই দেশজুড়ে শোরগোল পড়ে গেছে। কেন্দ্রের বক্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করে আসরে নেমে পড়েছেন বিরোধীরা। অন্যদিকে, বিজেপি নেতার নেমে পড়েছেন কেন্দ্রের বক্তব্যের সমর্থনে। এমন পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের পাশেই দাঁড়িয়েছে বেশ কিছু রাজ্য। এই রাজ্যগুলির সবই যে বিজেপি বা বিজেপির শরিক শাসিত তা নয়।

গত মঙ্গলবার রাজ্যসভায় কংগ্রেস সাংসদ কেসি বেণুগোপাল অক্সিজেন সঙ্কটে রোগী মৃত্যু নিয়ে প্রশ্ন তুললে, নতুন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী স্পষ্ট জানান, স্বাস্থ্য কেন্দ্রের বিষয় নয়। কোভিড চিকিৎসা ও মৃত্যু সংক্রান্ত তথ্য কেন্দ্রীয় সরকারকে রিপোর্ট দিয়ে জানায় রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলি। কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পরে অক্সিজেনের অভাবে রোগীদের মৃত্যু হয়েছে এমন কোনও তথ্য কেন্দ্রের জানা নেই। রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলির সরকার আলাদা করে কেন্দ্রকে এমন কোনও তথ্য খাতায় কলমে দেয়নি। কেন্দ্রের এমন দাবির পরেই কার্যত বিরোধী শিবিরের তুমুল সমালোচনা শুরু হয়। গতকালই দিল্লির স্বাস্থ্যমন্ত্রী সত্যেন্দ্র জৈন বলেছিলেন, কেন্দ্রীয় সরকার মিথ্যা কথা বলছে। দেশ দেখেছে কীভাবে অক্সিজেনের অভাবে হাসপাতালে, রাস্তাঘাটে কোভিড রোগীর মৃত্যুর হচ্ছে। কীভাবে রোগীদের পরিবার অক্সিজেন জোগাড় করতে গিয়ে সর্বস্বান্ত হয়েছে সে খবরও নাড়িয়ে দিয়েছে দেশকে। অক্সিজেন সঙ্কট নিয়ে মামলা হাইকোর্ট, সুপ্রিম কোর্ট অবধি গড়িয়েছে। এত কিছুর পরেও কীভাবে এমন দায়সারা উত্তর দিয়ে বিষয়টির গুরুত্ব লঘু করে দেখানোর চেষ্টা করছে কেন্দ্রীয় সরকার।

প্রবল বিতর্কের মুখে বিজেপি নেতারা যখন কেন্দ্রের পক্ষ সমর্থনে ব্যস্ত, তখন অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু নিয়ে কেন্দ্রের পাশে দাঁড়ায় বেশ কিছু রাজ্য। সূত্রের খবর, গুজরাট, মহারাষ্ট্র, বিহার, তামিলনাড়ু, মধ্যপ্রদেশ, গোয়া ও ছত্তীসগড়ের সরকার জানিয়েছে, অক্সিজেনের অভাবে রাজ্যে একটিও মৃত্যুর ঘটনা ঘটেনি।

গুজরাটের মুখ্যমন্ত্রী বিজয় রূপানির বক্তব্য, কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউতে অক্সিজেনের ঘাটতি রোগী মৃত্যু হয়নি। গুজরাটে অন্তত সাড়ে ৮ লাখ করোনা রোগীর চিকিৎসা হয়েছে। রাজ্যের বড় হাসপাতালগুলি থেকে লাখের বেশি রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন, কোথাও অক্সিজেনের অভাবের কথা জানা যায়নি। কেন্দ্রের পাঠানো পর্যাপ্ত মেডিক্যাল অক্সিজেনের জোগান ছিল রাজ্যে।

মহারাষ্ট্রের স্বাস্থ্যমন্ত্রী রাজেশ টোপে বলেছেন, একজন রোগীও অক্সিজেনের অভাবে মারা যাননি। রাজ্যে তৈরি অক্সিজেন ও কেন্দ্রের পাঠানো অক্সিজেনের সঠিক ব্যবহার করা হয়েছে। প্রসঙ্গত রাজ্যসভার সাংসদ ও শিবসেনা নেতা সঞ্জয় রাউত গতকালই অক্সিজেন সঙ্কটের প্রসঙ্গে কেন্দ্রের তীব্র সমালোচনা করেছিলেন।

বিহারের স্বাস্থ্যমন্ত্রী মঙ্গল পান্ডে ও তামিলনাড়ুর স্বাস্থ্যসচিব জে রাধাকৃষ্ণাণের বক্তব্য একই। রাজ্যে অক্সিজেনের অভাবে কোনও রোগীর মৃত্যু হয়নি। তামিলনাড়ুর স্বাস্থ্যসচিবের বক্তব্য, অক্সিজেনের অভাব ছিল ঠিকই। তবে জোগানও ছিল। তাঁর দাবি, অক্সিজেন সাপোর্টে থাকা রোগীকেও বাঁচানো যায়নি। সেইসব মৃত্যুর কথা তোলা হচ্ছে না। মধ্যপ্রদেশের স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রভুরাম চৌধুরী বলেছেন, দিল্লি, উত্তরপ্রদেশে অক্সিজেনের ঘাটতি হয়েছিল। কিন্তু সরকার সঠিক সময়ে অক্সিজেন সরবরাহ করে সেই ঘাটতি পুষিয়ে দেয়। তাহলে কীভাবে অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যুর কথা বলা হচ্ছে। মধ্যপ্রদেশে এমন সঙ্কট দেখা যায়নি বলে দাবি করেছেন তিনি।

You might also like