Latest News

তিন দিন পরে ফের দৈনিক আক্রান্ত ৪০ হাজার ছাড়াল, কেরল, উত্তর-পূর্বে ভয়ঙ্কর সংক্রমণ

দ্য ওয়াল ব্যুরো: দেশে করোনা সংক্রমণের গ্রাফ কমেছিল গত কয়েকদিনে। বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্যমন্ত্রকের বুলেটিনে দেখা গেল, দৈনিক আক্রান্ত ফের ৪০ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। তবে করোনায় মৃত্যু কিছুটা কমেছে। সংক্রমণের হার মহারাষ্ট্র ও কেরলে সাঙ্ঘাতিক। বিশেষ করে কেরলে গত কয়েকদিনে দৈনিক সংক্রমণ মারাত্মকভাবে বেড়েছে। উত্তরপ্রদেশে কিছু জেলাতেও সংক্রমণের হার বেশি। সেইসব জেলাতে ভাইরাস সক্রিয় রোগীর সংখ্যাও বেড়েছে।

গত ২৪ ঘণ্টায় দেশে কোভিড পজিটিভ রোগীর সংখ্যা ৪১ হাজার ছাড়িয়েছে। তবে রোগ সারিয়ে সুস্থও হয়েছেন ৩৯ হাজারের কাছাকাছি। আরও একটা ইতিবাচক দিক হল কোভিডের মৃত্যু কিছুটা কমেছে। কিছুদিন আগেও সংক্রমণে দৈনিক মৃত্যু হাজারের কাছাকাছি চলে গিয়েছিল। এখন তা কমেছে। গত ২৪ ঘণ্টায় ভাইরাস সংক্রমণের মৃত্যু হয়েছে ৫৮১ জনের। মৃত্যুহারও দুই শতাংশের নীচেই আছে।

স্বাস্থ্যমন্ত্রকের কোভিড পরিসংখ্যাণ বলছে, দেশের ১৫টি রাজ্যের প্রায় ৯০টি জেলা থেকে ৮০ শতাংশ সংক্রমণের খবর মিলেছে। উত্তর-পূর্বের রাজ্যগুলিতেও সংক্রমণ বেড়েছে। মহারাষ্ট্রের ১৫টি, কেরলের ১৪টি, তামিলনাড়ুর ১২টি, ওড়িশা, অন্ধ্রপ্রদেশ, কর্নাটকের ১০টি করে জেলা রয়েছে। এই জেলাগুলিতে কোভিড পজিটিভিটি রেট তথা সংক্রমণের হারও বেশি। পজিটিভিটি রেট মানে হল প্রতি ১০০ জনের মধ্যে যতজনের করোনা রিপোর্ট পজিটিভ আসবে তার শতাংশের হিসেব। স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানাচ্ছে, দেশের উত্তর ও দক্ষিণের রাজ্যগুলিতে সংক্রমণের হার সবচেয়ে বেশি। জুলাই ৮ তারিখের পর থেকে কোভিড পজিটিভিটি রেট তথা সংক্রমণের হার আরও বেড়েছে কয়েকটি জেলায়। রাজস্থানের প্রায় ১০টি জেলায় সংক্রমণের হার ১০ শতাংশ ছাড়িয়ে গেছে।

কোভিডের তৃতীয় ঢেউ আসতে পারে বলে উদ্বেগ তৈরি হয়েছে ইতিমধ্যেই। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে, কোভিড বিধি আমান্য করা, মানুষের লাগামছাড়া মনোভাবই তৃতীয় ঢেউ ডেকে আনতে পারে। ভিড় ও জনবহুল এলাকায় মুখে মাস্ক পরছেন না অনেকেই। এই নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীও। পর্যটন কেন্দ্রগুলিতে লকডাউনের বিধিনিষেধ শিথিল হওয়ার পরে বহু মানুষের ভিড় দেখা যাচ্ছে। সে নিয়েও চিন্তা বেড়েছে। গতকালই কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব আজয় ভাল্লা সমস্ত রাজ্যের মুখ্যসচিবদের চিঠি দিয়ে বলেছেন, লকডাউনের রাশ আলগা করার আগে যেন বর্তমান ও আসন্ন কোভিড পরিস্থিতির কথা মাথায় রাখা হয়। চিঠিতে রাজ্যগুলিকে কোভিড মোকাবিলায় ৫টি কৌশল নিশ্চিত করার কথা বলেছেন তিনি। ওই ৫টি কৌশল হল– কোভিডের উপযুক্ত আচরণবিধি মানা, নমুনা পরীক্ষা, আক্রান্তের চিহ্নিতকরণ, চিকিৎসা এবং টিকাকরণ।

You might also like