Latest News

কাশ্মীরী পন্ডিতদের কাছে সুখবর, জঙ্গি সন্ত্রাসে ফেলে আসা সম্পত্তি ফিরে পাবেন, পোর্টাল চালু

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফেলে আসা সম্পত্তি ফেরত্ পাওয়ার দাবি  করতে পারবেন কাশ্মীরী পন্ডিতরা (kashmiri pandits)। এজন্য একটি পোর্টাল চালু করল জম্মু ও কাশ্মীর প্রশাসন (jk administration)। কাশ্মীরী  পন্ডিতদের জন্য স্থাবর সম্পত্তি আইন সম্পূর্ণ রূপায়ণের নির্দেশ দিয়েছিল প্রশাসন। তার মাসখানেক বাদে তাদের সম্পত্তি (property) ফিরে পাওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হল। ১৩  আগস্ট ওই আইন বাস্তবায়নের নির্দেশ দেন জম্মু ও কাশ্মীরের লেফটেন্যান্ট গভর্নর মনোজ সিনহা।  জম্মু ও কাশ্মীরে  ৩৭০ অনুচ্ছেদ (article 370) বাতিলের পর প্রশাসনের আরও এক বড় সিদ্ধান্ত হতে চলেছে এটি।

কেন্দ্রশাসিত  জম্মু ও কাশ্মীর প্রশাসন উপত্যকায় কাশ্মীরী পন্ডিতদের পুনর্বাসন সুনিশ্চিত করতে চায়। নয়ের দশকে সন্ত্রাসবাদীদের তাড়া খেয়ে  প্রাণভয়ে কাশ্মীর উপত্যকায় ঘরবাড়ি ফেলে দেশের অন্যত্র পালিয়ে যান কাশ্মীরী পন্ডিতরা।  তখন জম্মু ও  কাশ্মীর একটি রাজ্য। পন্ডিতদের ফেলে যাওয়া সম্পত্তি বেদখল বা জলের দরে বিক্রি হয়ে যায়। সেই সম্পত্তি তাদের ফেরাতে উদ্যোগী প্রশাসন। তারা একটা মেকানিজম চালু করেছে যা জেলা কমিশনারদের হাতে ক্ষমতা দেওয়া সুনিশ্চিত করবে। পাশাপাশি ১৯৭৬ ও ১৯৯৭ সালের আইনেও কিছু সংশোধন করা হয়েছে। পাশাপাশি জেলা কমিশনাররা এখন সুনিশ্চিত করবেন যে অভিযোগ নথিভুক্ত না হলেও  কোনও সম্পত্তি বেআইনি দখল হবে না। উপত্যকা ছেড়ে আসা লোকজনকে পোর্টালে রেজিস্টার, সম্পত্তির লোকেশন উল্লেখ করতে হবে, উপত্যকা ত্যাগের বছরও উল্লেখ করতে হবে। কেউ তাদের সম্পত্তি বেদখল করেছে কিনা, তাও উল্লেখ করতে বলা হয়েছে তাদের।

ধর্মীয় সম্পত্তির  প্রতি সম্মান সহ ওই আইন লঙ্ঘনের বিরুদ্ধে সময়মতো পদক্ষেপ করবে বলেও সুনিশ্চিত করেছে প্রশাসন। পাশাপাশি এজাতীয় সম্পত্তির জবরদখলকারীদের হটিয়ে তা হেফাজতে নিয়ে পুনরুদ্ধারও সুনিশ্চিত করবে তারা। উপত্যকায় কাশ্মীরী পন্ডিতদের স্থাবর সম্পত্তির  সম্ভাব্য বেহাত হওয়া রুখতেই এহেন পদক্ষেপ।

লেফটেন্যান্ট গভর্নরের পাশ করা আদেশকে উদ্ধৃত করে সংবাদ সংস্থা বলেছে, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ (জেলাশাসক) ১৫ দিনের মধ্যে পরিযায়ী সম্পত্তির সার্ভে বা ফিল্ড ভেরিফিকেশন করবেন, সব রেজিস্টার আপডেট করে কাশ্মীরের ডিভিশনাল কমিশনারকে কমপ্লায়েন্স রিপোর্ট জমা দেবেন।

 

 

You might also like