Latest News

দুরমুশ করেছিলেন পাক যুদ্ধবিমান, বীর চক্র পাচ্ছেন ‘ওয়ার-হিরো’ অভিনন্দন

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মিগ-২১ উড়িয়ে ঢুকে গিয়েছিলেন পাক সীমান্তে। পাকিস্তানের অত্যাধুনিক এফ-১৬ যুদ্ধবিমান ভেঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছিলেন পুরনো মিগ দিয়েই। সেই সাহসিকতারই পুরস্কার স্বরূপ প্রতিরক্ষার অন্যতম সেরা সম্মান বীর চক্র পাচ্ছেন বালাকোট আকাশযুদ্ধের নায়ক বায়ুসেনার গ্রুপ ক্যাপ্টেন অভিনন্দন বর্তমান। আজ সোমবার রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দের হাত থেকে বীর চক্র নেবেন অভিনন্দন।

বায়ুসেনার উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন এখন গ্রুপ ক্যাপ্টেন। আর কিছুদিন পরেই গ্রুপ কম্যান্ডার হিসেবে দায়িত্ব নেবেন তিনি। ২০১৯ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি মিগ-২১ যুদ্ধবিমান উড়িয়ে পাকিস্তানের এফ-১৬ ফাইটার জেট ধ্বংস করেছিলেন অভিনন্দন। একা ঢুকে গিয়েছিলেন পাকিস্তানের আকাশসীমায়। বন্দি হওয়ার পরেও সাহস হারাননি। তাঁর বীরত্ব ও সাহস মুগ্ধ করেছিলেন দেশকে।

যুদ্ধক্ষেত্রে সাহসিকতার পরিচয়ের পুরস্কার স্বরূপ এই বীরচক্র সম্মান তুলে দেওয়া হয় সেনাদের হাতে। সর্বোচ্চ সম্মান পরমবীর চক্র, তারপর মহাবীর চক্র এবং তৃতীয় সর্বোচ্চ সম্মান বীরচক্র।

পুলিশ ঠিক করেছে, চমকালে ধমকালে এমনই হবে: সায়নীর গ্রেফতারি নিয়ে কটাক্ষ দিলীপের

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কাশ্মীরের পুলওয়ামা জেলার অবন্তীপোরার কাছে লেথপোরায় জম্মু-শ্রীনগর হাইওয়ের উপর সিআরপিএফ-এর কনভয়ে হামলা চালায় জঙ্গিরা। আত্মঘাতী এই হামলায় শহিদ হন ৪৪ জন জওয়ান। ফিদাঁয়ে হামলার দায় স্বীকার করে পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ। এই ঘটনার ১৩ দিনের মাথায় পাল্টা প্রত্যাঘাত করে ভারতীয় বায়ুসেনা। পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বালাকোটে অবস্থিত জইশের সবচেয়ে শক্তিশালী এবং সক্রিয় ঘাঁটি গুঁড়িয়ে দেয় বায়ুসেনা। এর পরের দিন ভারতের ভূখণ্ডে হানা দেয় পাক যুদ্ধবিমান। সেই সময়েই মিগ-২১ জেট বাইসনের সাহায্যে পাক যুদ্ধবিমান এফ-১৬ গুলি করে নামান উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন। সেই সময় নিয়ন্ত্রণোরেখা পেরিয়ে পাক ভূখণ্ডে প্রবেশ করে তাঁর যুদ্ধবিমান। আহত অবস্থায় পাক সেনার হাতে বন্দি হন অভিনন্দন বর্তমান। দীর্ঘ ৬০ ঘণ্টা পর তাঁকে মুক্তি দেয় ইসলামাবাদ।

তবে দেশে ফেরার পর উৎসবে যোগ দেননি অভিনন্দন। বরং সেনা হাসপাতালে চিকিৎসার পরেই যোগ দিয়েছিলেন শ্রীনগরের বায়ুসেনার স্কোয়াড্রনে। মেরুদণ্ডে চোট, পাঁজরের হাড়ে চিড়, দীর্ঘ ৬০ ঘণ্টা পাক সেনার হাতে মানসিক এবং শারীরিক অত্যাচারের পরেও নিজের কর্তব্য পালনে উইং কম্যান্ডার অভিনন্দন ছিলেন একনিষ্ঠ।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা সুখপাঠ

You might also like