Latest News

ভিমা কোরেগাঁও মামলা: স্ট্যান স্বামীদের কম্পিউটারে নথিপত্র ঢুকিয়ে দেওয়া হয়? দাবি মার্কিন এজেন্সির

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ফাদার স্ট্যান স্বামীর মৃত্যুর পর নরেন্দ্র মোদী সরকারের দিকে আঙুল তুলছে বিরোধীরা। তার মধ্যেই চাঞ্চল্যকর দাবি মার্কিন ফরেনসিক এজেন্সির। বস্টনের আর্সেনাল কনসালটিং নামে ওই বিদেশি সংস্থার বক্তব্য, স্বামীর মতোই মাওবাদী সংশ্রবের অভিযোগে কঠোর ইউএপিএ আইনে গ্রেফতার সুরেন্দ্র গ্যাডলিংয়ের কম্পিউটারে আপত্তিকর নথি, তথ্যপ্রমাণ ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল। গ্রেফতার হওয়ার আগে দুবছরের বেশি সময় ধরে সুরেন্দ্রর কম্পিউটারে ইমেল যেত, তার কপি পেতেন স্বামীও। যা থেকে সন্দেহ, স্বামীর কম্পিউটারও নিশানায় ছিল। ভিমা কোরেগাঁও মামলায় অভিযুক্ত ১৬ জনের মধ্যে ছিলেন ৮৪ বছরের পাদ্রী স্বামী ও গ্যাডলিং।

জাতীয় তদন্ত সংস্থা দাবি করে, স্বামী ও  বাকিরা তিন বছর আগে মহারাষ্ট্রের ভিমা কোরেগাঁওয়ের দাঙ্গা, হিংসায় প্ররোচনা দিয়েছিলেন। দলিতদের জোট বেঁধে উচ্চবর্ণের সেনাবাহিনীকে পরাস্ত করার ঐতিহাসিক ঘটনার স্মরণানুষ্ঠানে সামিল হতে লাখ লাখ দলিতের সমাবেশ হয়েছিল। স্বামী ও অন্যরা নাকি এর উদ্যোক্তা ছিলেন।

যদিও বৃদ্ধ যাজক মৃত্যুর আগে পর্যন্ত একাধিক জামিনের আবেদনে বারবার একটাই কথা বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে দাঙ্গায় উসকানি, মাওবাদী গেরিলাদের সঙ্গে যোগসাজশের অভিযোগ এনে যেসব তথ্য পেশ করা হয়েছে, সবই ভুয়ো, সাজানো। ওই ১৬ জনকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে খুনের ছক কষায়ও অভিযুক্ত করা হয়। যদিও কেন্দ্রের বর্তমান শাসক দলের বিরোধী সমালোচকদের দাবি, বামঘেঁষা বুদ্ধিজীবী সহ বিরোধীদের দমন করতেই ইউএপিএ-র মতো কঠোর সন্ত্রাস দমন আইন প্রয়োগ করা হয়েছে।

চলতি বছরে দি ওয়াশিংটন পোস্ট ওই মার্কিন সংস্থারই একই ধরনের একটি নথি ছাপে, যাতে দাবি করা হয়, সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের সঙ্গে যোগ থাকায়  আরেক অভিযুক্ত রোনা উইলসনের কম্পিউটারে ৩০টির বেশি নথিপত্র ঢুকিয়ে দিয়েছিল এক অজ্ঞাতপরিচয় হ্যাকার। আর্সেনালের চলতি বছরের জুনের সর্বশেষ রিপোর্টে নাগপুরের ৫৩ বছরের দলিত অধিকার আন্দোলনকর্মী গ্যাডলিংয়ের হার্ড ড্রাইভটি পরীক্ষা করে বিপজ্জনক তথ্যপ্রমাণ ঢুকিয়ে দেওয়ার আরও গভীর প্রমাণ মিলেছে বলে দাবি।

বস্টন ম্যারাথনে বোমা বিস্ফোরণ সমেত একাধিক হাইপ্রোফাইল কেসের ওপর আর্সেনাল কাজ করেছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে তাদের ওয়েবসাইটে।

রিপোর্টে রয়েছে, ২০১৬ র ফেব্রুয়ারি থেকে ২০১৭র নভেম্বরের মধ্যে ২০মাসের ওপর গ্যাডলিংয়ের কম্পিউটার সিস্টেমে কলকাঠি নেড়ে অন্ততঃ ১৪টি আপত্তিকর চিঠি তাতে ঢুকিয়েছিল রোনা উইলসনের সিস্টেমকেও নিশানা করা সেই একই হ্যাকার। রোনার কম্পিউটারে ৩০টি ফাইল ঢুকিয়ে দিয়েছিল সে। গ্যাডলিংয়ের কম্পিউটার কব্জা করে ফেলা হ্যাকারের  সময় সহ পর্যাপ্ত সম্পদ ছিল, সে নজরদারি ও নথিপত্র ঢুকিয়ে দেওয়া, দুটোই করত বলে জানিয়েছে আর্সেনাল।

গ্যাডলিংয়ের কম্পিউটারের হার্ড ড্রাইভটি বাজেয়াপ্ত করে তার একটি কপি তাঁর আইনজীবীদের দিয়েছে পুলিশ। সেটি পরীক্ষার জন্য আর্সেনালকে দেন ওই আইনজীবীরা। আর্সেনাল বলেছে, ইমেলের মাধ্যমে স্বামীর কম্পিউটারেও ঢোকার অনেক চেষ্টা করেছিল হ্যাকার। ২০১৬র ফেব্রুয়ারি তাঁকে ম্যালওয়ার পাঠানো হয়। ম্যালওয়ার হল এক ধরনের সফটওয়্যার যা তৈরি হয় কারও কম্পিউটারে ঢোকার দরজা হিসাবে।

You might also like