Latest News

বিয়ে-চাকরি-টাকার টোপে ধর্মান্তরণে গ্রেফতার ৮, জুড়ল দেশবিরোধী যুদ্ধ ঘোষণার অভিযোগও

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বেআইনি ধর্মান্তরণে (illegal conversion racket) যুক্ত থাকার অভিযোগে আগেই গ্রেফতার করেছিল উত্তরপ্রদেশ পুলিশের সন্ত্রাস দমন শাখা বা এটিএস (up ats)। এবার তাদের আবেদন গ্রহণ করে গ্রেফতার আটজনকে ভারতের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণায় (waging war against india) অভিযুক্ত করল  লখনউয়ের এক আদালত। তাদের বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১২১-এ (১২১ ধারায় শাস্তিযোগ্য অপরাধ ঘটানোর চক্রান্ত করা), ১২৩ (যুদ্ধ ঘোষণার ছক বাস্তবায়নের উদ্দেশে তথ্য গোপন) ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, আইপিসির ১২১ ধারার আওতায় ভারত সরকারের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা, যুদ্ধ ঘোষণার চেষ্টা করা বা তাতে প্ররোচনা  দেওয়া-যাবতীয় অভিযোগ পড়ে।

আরও পড়ুন–কালনার ‘পাঁচ টাকার ডাক্তারবাবু’ গৌরাঙ্গ গোস্বামী প্রয়াত, করোনা প্রাণ কাড়ল জনদরদী চিকিৎসকের

চলতি বছরের ২১ জুন দিল্লি থেকে দুই মৌলবী মহম্মদ উমর গৌতম ও মুফতি কাজি জাহাগির আলম কুরেশিকে  গ্রেফতার করে হাজার হাজার লোকের অবৈধ ধর্ম বদলে জড়িত এক বিরাট চক্রের হদিশ পাওয়ার কথা জানায় এটিএস। পরে এজেন্সি আরও ৮জনকে গ্রেফতার করে দাবি করে, এরা ইসলামিক দাওয়া সেন্টারের ব্যানারে ব্যাপক ধর্মান্তরণ চালিয়েছে। সেন্টার শারীরিক প্রতিবন্ধী শিশু, মহিলা, গরিব, বেকারদের ভাল শিক্ষাদীক্ষা, বিয়ে, চাকরি, অর্থের প্রলোভন  দেখিয়ে ধর্মান্তরণের টার্গেট করে বলেও দাবি করে এটিএস।

গ্রেফতার মোট দশজনের  মধ্যে চারজন মহারাষ্ট্র, দুজন দিল্লি, হরিয়ানা, গুজরাত, উত্তরপ্রদেশ, ঝাড়খন্ডের একজন বলে জানা গিয়েছে।

২ মৌলবী সমেত ১০ জনের বিরুদ্ধে ১২১-এ স, ১২৩ ধারা প্রয়োগের পর্যাপ্ত তথ্যপ্রমাণ জোগাড় করা হয়েছে বলে জানিয়েছে এটিএস। আদালতে কেস ডায়েরিও পেশ করেছে তারা। তথ্যপ্রমাণ, কেস ডায়েরি খতিয়ে  দেখে আদালত ৮ অভিযুক্তের বিরুদ্ধে ১২১-এ ও ১২৩ ধারা ব্যবহারের অনুমতি দিয়েছে বলে জানান জনৈক এটিএস কর্তা।

মামলার পরবর্তী শুনানি ১৪ সেপ্টেম্বর।

 

 

 

You might also like