Latest News

Narendra Modi।KCR: মোদীকে হটাতে ভারত যাত্রায় কেসিআর, আসছেন বাংলাতেও, পিছনে কি প্রশান্ত

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাজনীতির ভারতযাত্রা শুরু করলেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী কে চন্দ্রশেখর রাও। বিশেষ বিমানে সদলবলে শুক্রবার গিয়েছেন দিল্লি। আজ যাবেন পাঞ্জাবে। এরপর মহারাষ্ট্র, তামিলনাড়ু, ঝাড়খণ্ড, বিহার হয়ে আসবেন বাংলায় (Narendra Modi।KCR)।

কেসিআরের দল তেলেঙ্গানা রাষ্ট্র সমিতির বক্তব্য, আসন্ন রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে বিরোধী শিবিরের যোগ্য প্রার্থী বাছাইয়ে ঐক্যমত গড়ে তোলার লক্ষ্যেই কয়েকটি অবিজেপি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও বিশিষ্ট নেতাদের সঙ্গে কথা বলবেন তিনি। প্রথম দফার সফর চলবে ৩০ মে পর্যন্ত। তাৎপর্যপূর্ণ হল, কংগ্রেস শাসিত দুই রাজ্য রাজস্থান ও ছত্তিশগড় তাঁর সফর তালিকায় নেই। আসলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো তিনিও মনে করেন বিজেপি বিরোধী লড়াইয়ে কংগ্রেস বিশ্বাসযোগ্যতা হারিয়েছে (Narendra Modi।KCR)।

পাঞ্জাবে আজ তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে একটি অনুষ্ঠােন উপস্থিত থাকার কথা দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল এবং পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী ভগবন্ত সিং মানেরও। কেন্দ্রের তিন কৃষি বিলের বিরুদ্ধে আন্দোলনের সময় নিহত কৃষকদের পরিবারকে কেসিআর সরকার তিন লাখ টাকা করে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। চণ্ডীগড়ে এক অনুষ্ঠানে কয়েকজনের হাতে চেক তুলে দেবেন তিন মুখ্যমন্ত্রী। আসছে বছর তেলেঙ্গানায় বিধানসভা ভোট। কেসিআরের সবচেয়ে বড় ভোট ব্যাংক কৃষকেরা।

সেমিস্টার পদ্ধতি বাতিল, আইসিএসই ও আইএসসি শিক্ষার্থীরা একটি করে পরীক্ষা দেবে ২০২৩-এ

গত কয়েক মাস যাবৎ তিনি দাবি করে আসছিলেন, তেলেঙ্গানার সব ধান কেন্দ্রকে কিনে নিতে হবে। নরেন্দ্র মোদীর সরকার সেই দাবিতে কর্ণপাত না করায় কেসিআর ঘোষণা করেছেন রাজ্য সরকারই কিনবে সব ধান। মোদীর তিন কৃষি আইনের ঘোর বিরোধিতায় নেমেছিলেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী। আইন তিনটি বাতিল হওয়ার পর থেকে তাঁর সমর্থকেরা দাবি করে আসছে, এই ক্ষেত্রে নৈতিক জয় যদি কোনও মুখ্যমন্ত্রীর হয়ে থাকে তবে তা কেসিআরের। পাঞ্জাবে নিহত কৃষকদের পরিবারকে আর্থিক সহায়তা দেওয়ার ঘোষণাও তাঁর কৃষক ভোট ব্যাংককেই বার্তা, মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

শুধু তাই নয়, বিরোধীদের রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী বাছাইয়ে তাঁর বিশেষ বিমানে ভারত সফরের কর্মসূচিকেও রাজ্যের আসন্ন বিধানসভা ভোটের সঙ্গে এক করে দেখছে রাজনৈতিক মহল। তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী বেশ কিছুদিন ধরেই বার্তা দিচ্ছেন, এবার রাজ্যের বাইরে পা রাখতে চান। জাতীয় রাজনীতিতে ভূমিকা পালন করতে চান। বস্তুত, রাজ্য সরকারের অনেক কাজই এখন পুত্রের হাতে ছেড়ে রেখেছেন তিনি। বিধানসভা ভোটে জয় হাসিল করতে পারলে ছেলে কেটি রামারাওকে মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসিয়ে ২০২৪-এর জন্য ঝাঁপিয়ে পড়বেন, এমনটাই আভাস পাওয়া যাচ্ছে।

গরম চায়ে চুমুক দিয়েই জিভ পুড়ল? জ্বালা কমাতে ভীষণ কাজে দেবে এই টোটকাগুলো

ভোট কুশলী প্রশান্ত কিশোর এই ছক বাতলে দিয়েছেন, মনে করছে রাজনৈতিক মহল। তেলেঙ্গানা রাষ্ট্রসমিতির হয়ে কাজ করছে প্রশান্তের কোম্পানি। যদিও ওই ভোট কুশলীর দাবি, তিনি কোনও সংস্থার সঙ্গে যুক্ত নন। ব্যক্তিগত সম্পর্কের খাতিরে পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

কিন্তু লক্ষ্যণীয় হল, গত মাসে সনিয়া গান্ধী-সহ কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্বের সঙ্গে আলোচনার ফাঁকে এক রাতে বিশেষ বিমানে হায়দরাবাদ উড়ে যান প্রশান্ত। মুখ্যমন্ত্রীর বাগানবাড়িতে একান্ত বৈঠকের পর দিল্লি ফেরেন। কংগ্রেসের সঙ্গে আলোচনা, ওই দলে যোগদানের বিষয়টি তারপরই থমকে যায়।

দিল্লি ও হায়দরাবাদের রাজনৈতিক শিবিরের খবর, প্রশান্তের পরামর্শেই জাতীয় স্তরে বিরোধী মুখ হয়ে ওঠার দৌড়ে এগিয়ে থাকতেই বিশেষ বিমানে রাজনীতির ভারত সফরে বেরিয়েছেন তেলেঙ্গানার মুখ্যমন্ত্রী। এ মাসের শেষ দিকে কলকাতায় আসতে পারেন তিনি।

You might also like