Latest News

রাজীবের হত্যাকারীদের মুক্তির রায় খারিজের আর্জি নিয়ে সুপ্রিম কোর্টে মোদী সরকার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: রাজীব গান্ধীর (Rajiv Gandhi) হত্যাকারীদের মুক্তি দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court)। সর্বোচ্চ আদালতের কাছেই আজ সেই রায় বাতিলের দাবি জানাল নরেন্দ্র মোদীর সরকার (Narendra Modi government)।

গত ১১ নভেম্বর নলিনী শ্রীহরণ-সহ যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত ছয় আসামীকে মুক্তি দেয় সুপ্রিম কোর্ট। তাদের মধ্যে চারজনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিল নিম্ন আদালত। সনিয়া গান্ধী এবং রাহুল ও প্রিয়ঙ্কার হস্তক্ষেপে মৃত্যুদণ্ডের সাজা আগেই রদ হয়েছিল। সাতদিন আগে আজীবন কারাবাসের সাজাও মকুব হয় সুপ্রিম কোর্টের রায়ে। এক আসামীকে আগেই মুক্তি দিয়েছিল সর্বোচ্চ আদালতই।

আজ সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রারের অফিসে কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে পেশ করা রিভিউ পিটিশনে বলা হয়, নলিনীদের মুক্তিদানের মামলায় সরকারের বক্তব্য সঠিকভাবে তুলে ধরা সম্ভব হয়নি। তাছাড়া আইনের দৃষ্টিকোণ থেকেও রায়টি অন্যায্য। রায় পুনর্বিবেচনা করা হোক।

প্রসঙ্গত, রাজীব গান্ধীর পরিবার অপরাধীদের ক্ষমা করার পাশাপাশি তাদের মুক্তির পক্ষে সওয়াল করলেও দলগতভাবে কংগ্রেস রায়ের সমালোচনা করে জানায় প্রয়োজনে তারা আদালতে যাবে। যদিও এই ক্ষেত্রে মামলা করার কথাই ছিল কেন্দ্রীয় সরকারের। সেই মামলাই আজ দায়ের হয়েছে।

কংগ্রেস যদিও জানত, সরকার রায় পর্যালোচনার দাবি জানাবে। তারপরও রাজীবের দলের দায় ছিল রায়ের সমালোচনা করার। তা না করলে উগ্রবাদীদের সঙ্গে আপস করার অভিযোগ উঠত।

লক্ষ্যণীয়, নরেন্দ্র মোদী সরকার কালক্ষেপ না করে রাজীব হত্যাকারীদের ফের জেলে পুরতে ব্যস্ত হয়ে উঠেছে। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, রাষ্ট্রীয় কর্তব্য পালন ছাড়াও কেন্দ্রের তৎপরতার পিছনে রাজনৈতিক সমীকরণও কাজ করছে। মোদী সরকার চায় না কংগ্রেস রাজীব হত্যাকারীদের ব্যাপারে সরকারের বিরুদ্ধে নরম মনোভাব নেওয়ার অভিযোগ তুলুক। গুজরাত বিধানসভার ভোটের মুখে বিজেপিও এই ব্যাপারে বাড়তি সতর্ক।

বাংলার নতুন রাজ্যপাল হচ্ছেন ইনি, ‘বোস’ কিন্তু বাঙালি নন

You might also like