Latest News

বাগদত্তাকে নোংরা মেসেজ পাঠানো অপরাধ নয়, বলল মুম্বইয়ের আদালত

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাগদত্তাকে অশ্লীল মেসেজ পাঠানোর মানে তাঁর সম্মানহানি নয়, সম্প্রতি এমনটাই জানিয়েছে মুম্বইয়ের এক আদালত (Court)। একটি মামলার পরিপ্রেক্ষিতে আদালত জানিয়েছে, যে মহিলার সঙ্গে বিয়ে ঠিক হয়ে আছে, ভবিষ্যতে যাঁর সঙ্গে বিয়ে হবে, তাঁকে নোংরা কুরুচিকর মেসেজ পাঠানোকে ওই মহিলার সম্মানহানি বলে দেগে দেওয়া যায় না।

তথাগতর টুইটে দিলীপের জবাব, ‘উনি থাকাতেই বা দলের কী লাভ হচ্ছে!’

১১ বছরের একটি পুরনো মামলার শুনানি একথা জানিয়েছে মুম্বইয়ের আদালত। বাগদত্তাকে নোংরা মেসেজ পাঠানো কোনও অপরাধের পর্যায়েই পড়ে না বলে মত আদালতের বিচারপতির। এই মামলার মূল অভিযুক্তকে মুক্তিও দেওয়া হয়েছে।

অভিযুক্তের বিরুদ্ধে প্রতারণা ও বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ধর্ষণের অভিযোগ ছিল। ১১ বছর আগের সেই মামলার শুনানিতে এদিন আদালত জানিয়েছে, বিয়ের আগে এই ধরণের মেসেজ পাঠানো আবেগের বহিঃপ্রকাশ। আবেগতাড়িত হয়েই এইসব মেসেজ পাঠিয়েছেন অভিযুক্ত।

বিচারপতির বক্তব্য, এই ধরণের মেসেজ অপরপক্ষের পছন্দ নাই হতে পারে। তবে খারাপ উদ্দেশ্য নিয়ে তা পাঠানো হয়নি। অভিযুক্তের নিজের মধ্যে যে যৌন অনুভূতি হয়েছিল তাই সে জাগিয়ে তুলতে চেয়েছে উল্টোদিকের মানুষটার মধ্যেও। একে তাঁর সম্মানহানি বলা যায় না কোনওভাবেই।

২০০৭ সালে একটি ম্যাট্রিমোনিয়াল সাইট থেকে যুগলের পরিচয় হয়েছিল। ২০১০ সালে যুবকের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করে মহিলা। আদালতের বক্তব্য, বিয়ের সমস্তরকম প্রতিশ্রুতিকেই প্রতারণার আখ্যা দেওয়া যায় না। তাকে ধর্ষণও বলা যায় না।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like