Latest News

সাংবাদিককে গালাগাল, ‘চোর’ বললেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী, লখিমপুর কৃষক হত্যায় গ্রেফতার ছেলে

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ছেলে আশিস সিং লখিমপুর (lakhimpur case) খেরির গাড়ির তলায়  পিষে কৃষক হত্যার (farmer death) ঘটনায় অভিযুক্ত। প্রবল চাপের মধ্যে মেজাজ হারিয়ে দুর্ব্য়বহার, সাংবাদিকদের (journalist) গালাগাল (abuse) করলেন, এমনকী চোরও বললেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী (mos) অজয় সিং তেনি! তাঁর নতুন বিতর্কিত আচরণের ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। গতকালই সংবাদমাধ্যম জানায়, অক্টোবরে কেন্দ্রীয়  মন্ত্রীর ছেলে এসইউভির তলায় পিষে কয়েকজন কৃষকের মৃত্যুর যে ঘটনা ঘটিয়েছেন, সেটি তাত্ক্ষণিক  নয়, পরিকল্পিত চক্রান্তই ছিল। অর্থাত্ কেন্দ্রীয় কৃষি আইনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভরত কৃষকদের খুন করাই তাঁর উদ্দেশ্য ছিল। বিচারককে দেওয়া রিপোর্টে এই অভিমত জানিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে ভারতীয় দণ্ডবিধির অতিরিক্ত ধারা যুক্ত করার সুপারিশ করে তদন্তকারী সিট। এতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর অস্বস্তি বেড়ে যায়। উত্তরপ্রদেশের লখিমপুরের গাড়িচাপা দিয়ে  কৃষক হত্যায় শুরু থেকেই দাবি উঠছিল, অজয় সিংকে নরেন্দ্র মোদী মন্ত্রিসভা থেকে বরখাস্ত, অপসারণ করা হোক। কিন্তু সেই দাবিতে কর্ণপাত করেনি ক্ষমতাসীন দল।

তিনি  নিজের সংসদীয় কেন্দ্রে গিয়েছিলেন শিশু ও প্রসূতি হাসপাতালের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে। সেখানে ছেলেকে নিয়ে প্রশ্ন শুনেই মাথা গরম হয়ে যায় মন্ত্রীর। তখনকার তোলা ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে,  তিনি সাংবাদিকদের ক্যামেরা বন্ধ করতে বলেন। এক সাংবাদিকের মোবাইল ফোনও কেড়ে নেন তিনি। সিট রিপোর্ট নিয়ে প্রশ্ন উঠতেই মন্ত্রী বলে ওঠেন, এসব বোকা বোকা প্রশ্ন করবেন না। আপনাদের কি মাথা খারাপ হয়েছে? মাইক বন্ধ করো বলে তিনি চিত্কার করে ওঠেন, চোর বলেন সাংবাদিকদের।

সিটের কড়া রিপোর্টের পরিপ্রেক্ষিতে চাপ বাড়ছে বিরোধীদের। অজয় মিশ্রের পদত্যাগ চেয়ে রাহুল গাঁধী গতকাল বলেন, লখিমপুর খেরির অন্যায়ের বলি লোকজনের ন্যয়বিচারের জন্যই ওঁকে বরখাস্ত করতে হবে সরকারকে।  তবে তার আগে ওঁর নিজেরই ইস্তফা দেওয়া উচিত।  এব্যাপারে বিরোধীরা সংসদে আলোচনা চান বলেও জানান রাহুল। বলেন, আমরা চেষ্টা করছি। সরকার আমাদের আলোচনা করতে দিচ্ছে না। এজন্যই সভায় বিঘ্ন ঘটছে।

গত  ৩ অক্টোবরের হিংসা ২০২২ এর বিধানসভা ভোটের আগে রাজনৈতিক উত্তাপ ছড়িয়েছে উত্তরপ্রদেশ, পাঞ্জাবে। চার কৃষক সহ মোট ৮ জন হিংসার বলি হয়। দুটি পৃথক এফআইআর দায়ের হয়েছে।

অজয় মিশ্রের সংসদীয়  কেন্দ্রে উত্তরপ্রদেশের ডেপুটি মুখ্যমন্ত্রী কেশব প্রসাদ মৌর্যের সফরের বিরোধিতায় বিক্ষোভরত চাষিদের ওপর দিয়ে জোর গতিতে এসইউভি চলে গিয়েছিল। গাড়িতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর ছেলে ছিলেন বলে দাবি।

You might also like