Latest News

কালনায় রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্ক থেকে উধাও লক্ষ লক্ষ টাকা! থানায় গেলেন ভুক্তভোগী গ্রাহক

দ্য ওয়াল ব্যুরো: ব্যাঙ্ক (Bank) থেকে উধাও হয়ে গেল ফিক্সড ডিপোজিটের লক্ষাধিক টাকা (Money)। ভুক্তভোগী খোদ বিডিও অফিসের অবসরপ্রাপ্ত কর্মী।

ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানে কালনায়। মেয়ের কঠিন অসুখের চিকিৎসার জন্যে লক্ষাধিক টাকা প্রয়োজন কালনার মধুবন পাড়া এলাকার বাসিন্দা ধীরেন্দ্রনাথ দাসে। তাই রিটায়ারমেন্টের পর এককালীন হিসাবে পাওয়া ২ লক্ষ টাকা ব্যাঙ্ক থেকে তুলতে গিয়েছিলেন । গিয়ে দেখেন সেই টাকাই ব্যাঙ্ক থেকে হঠাৎ উধাও! কীভাবে এই ঘটনা ঘটল, তা ভেবে কুলকিনারা পাচ্ছেন না ধীরেন্দ্রনাথ বাবু। অতঃপর সেই ব্যাঙ্কের বিরুদ্ধে কালনা থানার দ্বারস্থ হন তিনি।

আরও পড়ুনঃ জালিওয়ানাবাগের সঙ্গে হুগলির দশঘরার ‘মুখার্জি’ পরিবারের সম্পর্ক কী তবে সমাপ্তির পথে?

জানা গেছে, ২০১৮ সালে রিটায়ারমেন্টের পর সেই বছরেরই ২৯শে অগস্ট ধীরেন্দ্রনাথ বাবু কালনারই একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কে ২ লক্ষ টাকার একটি ফিক্সড ডিপোজিট করেছিলেন। যার ম্যাচিউরিটি ডেট ছিল আগামী ২০২৩ সালের ২৯শে অগস্ট। এদিকে ছোট মেয়ের শারীরিক অসুস্থতার জন্য চিকিৎসার প্রয়োজনে মেয়াদ উত্তীর্ণ হওয়ার আগেই চলতি মাসে টাকাটি ভাঙাতে গিয়ে তাজ্জব বনে যান তিনি।

দেখেন, গত বছর ২৮ অক্টোবর তাঁরই ফিক্সড ডিপোজিট ভাঙানো হয়ে গেছে। রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের তরফে এমনই জানিয়ে দেওয়া হয় তাঁকে। এমনকি তাঁর সঙ্গে থাকা ওই ফিক্সড ডিপোজিটের সার্টিফিকেটেও ক্লোজ বলে লিখে দেওয়া হয় ব্যাঙ্কের তরফে। এরপরই কালনা থানার দ্বারস্থ হয়েছেন বিডিও অফিসের প্রাক্তন কর্মী ধীরেন্দ্রনাথ দাস।

তাঁর দাবি, জীবনের সঞ্চয়টুকু ব্যাঙ্কে জমা রেখেছিলেন। এখন মেয়ের চিকিৎসা কীভাবে হবে তাই ভেবে কুলকিনারা করতে পারছেন না।

এদিকে, কালনা শহরের সেই রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্কের ম্যানেজার ইন্দ্রজিৎ মজুমদারের কাছে বিষয়টি জানতে চাওয়া হলে, তিনি ক্যামেরার সামনে কিছু বলতে রাজি হননি। তবে মৌখিকভাবে জানান, ওই ব্যক্তি ব্যাঙ্কে কোনেও লিখিত অভিযোগ দায়ের করেননি। লিখিত অভিযোগ করলে বিষয়টি আমরা দেখব।

পড়ুন দ্য ওয়ালের সাহিত্য পত্রিকা ‘সুখপাঠ’

You might also like