Latest News

Mohun Bagan: মোহনবাগানে রক্তারক্তি, মনোনয়ন জমার শেষ দিনে ক্লাব তাঁবুতে তুলকালাম

দ্য ওয়াল ব্যুরো: মোহনবাগান ক্লাবের (Mohun Bagan) নির্বাচনের মনোনয়ন জমার শেষ দিন ছিল শনিবার। এদিনই বিকেলবেলা তুলকালাম কাণ্ড বাঁধল সবুজ মেরুন তাঁবুতে। ক্লাবেরই দুই গোষ্ঠীর মারামারিতে রক্তারক্তি কাণ্ড বাঁধল ক্লাবে। ভাঙচুর করা হয়েছে প্রাক্তন ফুটবলার তথা ক্লাবকর্তা সত্যজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের গাড়িও।

দেখা যায় দু’দল সমর্থক ব্যাট, উইকেট নিয়ে একে অন্যের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ছেন। ব্যাটের আঘাতে এক সমর্থকের মুখ ফেটে যায়। রক্তমাখা মুখ নিয়ে তাঁকেই আবার দেখা যায় পাল্টা মারতে ছুটছেন।

রাস্তা থেকে সেই মারামারি আছড়ে পড়ে ঐতিহ্যমণ্ডিত মোহনবাগান লনে। যেখানকার ঘাসে লেগে রয়েছে বহু গৌরবের ইতিহাস। এদিন সেখানেই কলঙ্কজনক ঘটনা ঘটল। সন্ধে পৌনে ছ’টার সময়ে ক্লাব তাঁবুতে বৈঠক করছেন ক্লাব কর্তারা। দ্য ওয়ালের তরফে মোহনবাগান কর্তা বাবুন বন্দ্যোপাধ্যায়কে ফোন করা হলে তিনি বলেন, ‘এটা মোহনবাগানের কোনও বিষয় নয়। দু’দল সমর্থক এটা করেছে। আমি ভিতরে রয়েছি। দেখছি কী হয়েছে।’

কয়েক বছর আগে মোহনবাগান ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভায় চূড়ান্ত বিশৃঙ্খলা ঘটেছিল। তৎকালীন সচিব অঞ্জন মিত্রকে মঞ্চের মধ্যে ধাক্কাধাক্কি করা হয়েছিল। মঞ্চের মধ্যে অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন প্রয়াত অঞ্জন মিত্র। একটা সময়ে যখন মোহনবাগানে অঞ্জন বনাম বলরাম গোষ্ঠীর সংঘাত ছিল সেই সময়ে প্রায়ই দুই গোষ্ঠীর লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়তেন। তবে মাঝে কয়েক বছর বাগানে সেই অর্থে বিরোধী স্বর বলতে কিছু ছিল না।

কিন্তু গত এক-দেড় বছরে বাগানের অভ্যন্তরীণ সমীকরণেও নানান বদল এসেছে। সৃঞ্জয় বসুর সরে যাওয়া, দেবাশিস দত্তদের সঙ্গে দূরত্ব, বাবুন বন্দ্যোপাধ্যায়ের উঠে আসা—সব মিলিয়ে চাপা উত্তেজনা ছিল। এদিন যেন সেসবই হাটখোলা হয়ে গেল।

৬ মাসের ব্যবধানে খুন দুই যুবতী! রেললাইনের ধারে পড়ে বিবস্ত্র দেহ

You might also like