Latest News

মোদীজি আপনি কি লখিমপুর খেরিতে যাবেন? প্রশ্ন প্রিয়ঙ্কার

দ্য ওয়াল ব্যুরো : সোমবার ভোরে লখিমপুর খেরিতে (Lakhimpur Kheri) যাওয়ার চেষ্টা করেন কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়ঙ্কা গান্ধী। কিন্তু পুলিশ তাঁকে আটক করে। এদিন সীতাপুর গেস্ট হাউসে রাখা হয় তাঁকে। মঙ্গলবার প্রিয়ঙ্কা গেস্ট হাউস থেকেই কটাক্ষ করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে। আর কিছুদিন পরেই প্রধানমন্ত্রী আসছেন লখনউতে। সেখানে তিনি ‘আজাদি কা অমৃত মহোৎসব’ উৎসবে অংশ নেবেন। এই প্রসঙ্গে প্রিয়ঙ্কা বলেন, মোদীজি স্বাধীনতা দিবসের উৎসবে আসছেন। কিন্তু কীসের স্বাধীনতা? কারা আমাদের স্বাধীনতা দিয়েছে?

পরে কংগ্রেস নেত্রী বলেন, কৃষকরা আমাদের স্বাধীনতা দিয়েছে। অভিযুক্ত মন্ত্রীকে বরখাস্ত না করে আপনি কীভাবে স্বাধীনতা দিবসের উৎসবে অংশ নিতে পারেন? এর পরেই প্রিয়ঙ্কা বলেন, মোদীজি, আপনি কি লখিমপুর খেরিতে যাবেন?

অভিযোগ, রবিবার লখিমপুর খেরিতে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী অজয়কুমার মিশ্রের ছেলে আশিস মিশ্রের গাড়ি কৃষকদের ধাক্কা মেরেছিল। ওই ঘটনায় চার কৃষক সহ আটজন নিহত হন।

রবিবার কৃষকরা মৃতদেহগুলির সৎকার করেননি। তাঁরা দেহগুলি ঘিরে সারা রাত বিক্ষোভ দেখান। সোমবার সকালে তাঁদের সঙ্গে আলোচনায় বসে পুলিশ। সরকার প্রতিশ্রুতি দেয়, মৃতদের পরিবারগুলিকে ৪৫ লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। যাঁরা আহত হয়েছেন, তাঁরা ক্ষতিপূরণ পাবেন ১০ লক্ষ টাকা করে। এই প্রতিশ্রুতি পাওয়ার পরে আন্দোলন তুলে নেন কৃষকরা। মৃত চার কৃষকের শেষকৃত্য করার প্রস্তুতি শুরু হয়।

ইতিমধ্যে আশিস মিশ্রের বিরুদ্ধে খুনের মামলা করা হয়েছে। সোমবার পুলিশ আশ্বাস দেয়, মৃতদের পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করা হবে। মন্ত্রী অবশ্য দাবি করেছেন, তাঁর ছেলে ঘটনাস্থলে ছিলেন না। তাঁর পাল্টা অভিযোগ, দুষ্কৃতীরা লাঠি ও তলোয়ার নিয়ে বিজেপি কর্মীদের আক্রমণ করেছিল। তাদের হামলায় গাড়ি উল্টে গেলে চারজন মারা যান। কৃষক সংগঠনগুলির যৌথ মঞ্চ সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা জানিয়েছে, মৃতরা হলেন লাভপ্রীত সিং (২৪), নাচাত্তার সিং (৬০), দলজিৎ সিং (৩২) এবং গুরবিন্দর সিং (২০)।

সোমবার রাত থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে ২৫ সেকেন্ডের এক ভিডিও ক্লিপ। তাতে দেখা যায়, কৃষকরা সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে স্লোগান দিচ্ছেন। এমন সময় তাঁদের ওপর দিয়ে আচমকাই চালিয়ে দেওয়া হল একটি স্পোর্টস ইউটিলিটি ভেহিকল। ভিডিও-য় দাবি করা হয়েছে, রবিবার লখিমপুর খেরিতে কৃষক বিক্ষোভের সময় ওই ছবি তোলা হয়েছিল। গাড়ির চালকের আসনে কে আছেন, ভিডিওতে বোঝা যায়নি। ওই ভিডিও সত্যিই লখিমপুর খেরির বিক্ষোভের সময় তোলা হয়েছিল কিনা, তা নিশ্চিত করে জানায়নি পুলিশ।

You might also like