Latest News

স্বামীর কান কেটে নেওয়ার ঘটনায় অভিযুক্ত স্ত্রী গ্রেফতার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বুকে বন্দুক ঠেকিয়ে স্বামীর দু’কান কেটে নিয়ে পালিয়েছিল নারকেলডাঙার বাসিন্দা মুমতাজ ও তার দুই বোন। ১২ দিন পলাতক থাকার পর অবশেষে পুলিশের জালে ধরা পড়ল তারা।

বছর দু’য়েক আগে মুমতাজের সঙ্গে বিয়ে হয় তনভীরের। বিয়ের পর মুমতাজের বাড়িতেই থাকতে শুরু করে তার থেকে বয়সে প্রায় ২০ বছরের ছোট তনভীর। তনভীরের অভিযোগ, জোর করে ফাঁসিয়ে তাকে বিয়ে করেছিল মুমতাজ। বিয়ের পর দিন থেকেই তার উপর অত্যাচার চরমে ওঠে। প্রায়শই তাকে মারধর করত মুমতাজ ও তার বোনেরা। সেই ভয়ে প্রায়ই বাড়ি ছেড়ে এদিক সেদিক পালিয়ে যেত সে। কিন্তু প্রতিবারই নিজের বাপের বাড়ির লোকজনদের দিয়ে তাকে ধরে বাড়িতে নিয়ে আসত স্ত্রী মুমতাজ। চলত মারধর। এমনকী তাকে নিজের বাড়িও ফিরতে দিত না মুমতাজ।

নিজের বাড়ি বিক্রি করে টাকা দিয়েও মুমতাজের অত্যাচারের হাত থেকে রেহাই পায়নি তনভীর। ১৯ জুলাই, একই ভাবে বাড়ি থেকে মল্লিকপুরে পালিয়ে গিয়েছিল সে। কিন্তু সেখান থেকে তাকে বাড়িতে ধরে এনে মারধর শুরু করে মুমতাজ ও তার বোনেরা। এর পর সবাই মিলে তাকে চেপে ধরে বুকে বন্দুক ঠেকায় ও দু’কান কেটে নেয়। রক্তাক্ত অবস্থায় মাটিতে লুটিয়ে পড়ে তনভীর। তাকে মৃত মনে করে বাড়ি ছেড়ে পালায় অভিযুক্তেরা। পরে তাকে উদ্ধার করে এনআরএসে ভর্তি করেন এলাকার বাসিন্দারা।

মুমতাজ ও তার বোনদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করে পুলিশ। এতদিন গা ঢাকা দিয়ে থেকেও শেষ রক্ষা হলো না। মঙ্গলবার বিকেলে পুলিশের জালে ধরা পড়ে তারা। বুধবার শিয়ালদহ আদালতে তোলা হবে তাদের।

You might also like