Latest News

ব্রাত্যর শিক্ষা কমিশনারকে বদলে দিলেন মমতা, বিকাশ ভবনের উপর ক্রমে দীর্ঘায়িত নবান্নের ছায়া

অমল সরকার

রাজ্যের নতুন শিক্ষা কমিশনার হচ্ছেন অরূপ সেনগুপ্ত। স্পেশ্যাল কমিশনার বিশেষ সচিব পদমর্যাদার এই অফিসারকে বিদ্যালয় শিক্ষা কমিশনারের পদে বসাল নবান্ন। শুক্রবার সন্ধ্যায় এই মর্মে নির্দেশ জারি করেছে সরকার।

লক্ষ্যণীয় হল, স্কুল শিক্ষা দফতরের গুরুত্বপূর্ণ পদে রদবদলের এই নির্দেশটি জারি করেছে নবান্নের কর্মীবর্গ ও প্রশাসনিক সংস্কার দফতর। ওই দফতরের মন্ত্রী স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রাজ্যের স্বরাষ্ট্রসচিব বিপি গোপালিকা দফতরের সচিব। গোপালিকার স্বাক্ষরিত নির্দেশ একটু আগে বিকাশ ভবনকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

এমনিতে স্কুল শিক্ষা কমিশনার এবং সমগ্র শিক্ষা মিশনের রাজ্য অধিকর্তার পদের যে কোনও একটিতে নতুন কাউতে বসাতেই হত। ওই দুটি পদে দীর্ঘদিন যাবৎ আছেন আর এক আইএএস অফিসার শুভ্র চক্রবর্তী।

Image - ব্রাত্যর শিক্ষা কমিশনারকে বদলে দিলেন মমতা, বিকাশ ভবনের উপর ক্রমে দীর্ঘায়িত নবান্নের ছায়া
নবান্নর থেকে জারি হওয়া বিজ্ঞপ্তি

গত পরশু আচমকাই তাঁকে এসএসসি-র চেয়ারম্যানের দায়িত্বও দেওয়া হয়। তার আগে এসএসসি-র চেয়ারম্যানের পদ থেকে হঠাৎ পদত্যাগ করেন সিদ্ধার্থ মজুমদার। এসএসসির নতুন চেয়ারম্যান হিসাবে শুভ্র চক্রবর্তীর নিয়োগ সংক্রান্ত নির্দেশিকাটি জারি করেছিল শিক্ষা দফতর অর্থাৎ বিকাশভবন। ফলে তাঁর উপর তিনটি গুরুত্বপূর্ণ দফতরের দায়িত্ব চেপে যাচ্ছিল।

কিন্তু আশ্চর্যের হল, শিক্ষা দফতরের জারি করা নির্দেশিকায় শুভ্র চক্রবর্তীর স্কুল শিক্ষা কমিশনার পদের উল্লেখ ছিল না। তাঁকে এসএসসি-র চেয়ারম্যান করার নির্দেশিকা জারির পর সকলের টনক নড়ে।

জানা যাচ্ছে তিনি শুক্রবার পর্যন্ত এসএসসির চেয়ারম্যানের দায়িত্বভার নেননি। অন্যদিকে, সিদ্ধার্থ মজুমদার পদত্যাগ করে কলেজে শিক্ষকতার চাকরিতে ফিরে গেলেও তাঁরও এসএসসি থেকে পুরোপুরি রেহাই মেলেনি বলে খবর। কারণ, তদন্তের প্রয়োজনে সিবিআই নানা সময় যোগাযোগ করছে। ধারণা করা হচ্ছে, সোমবার পাকাপাকিভাবে শুভ্র চক্রবর্তী এসএসসি-র চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নেবেন।

এসএসসির চেয়ারম্যান পদে আইএএস অফিসারকে বসানোর সিদ্ধান্ত পুরোপুরি নবান্নের। সরকারের পরিকল্পনার কথা জানা মাত্র শিক্ষামন্ত্রীর আস্থাভাজন হিসাবে পরিচিত সিদ্ধার্থবাবু ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে শিক্ষা সচিবের কাছে পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দেন।

শিক্ষা কমিশনার হিসাবে অরূপ সেনগুপ্তকে নিয়োগের সিদ্ধান্তও নিয়েছে নবান্ন। আশ্চর্যের হল, অরূপ সেনগুপ্ত শিক্ষা দফতরের অধীনেই উচ্চশিক্ষা বিভাগের বিশেষ সচিব পদমর্যাদায় বিশেষ কমিশনারের দায়িত্ব পালন করছিলেন। অর্থাৎ শিক্ষা দফতরের এক বিভাগের অফিসার আর এক বিভাগে বদলি হলেন নবান্নের নির্দেশে। শিক্ষা সংক্রান্ত গত কয়েকদিনের ঘটনাবলী এবং নির্দেশ থেকে অনেকেই মনে করছেন বিকাশ ভবনের উপর ক্রমেই দীর্ঘায়িত হচ্ছে নবান্নের ছায়া।

এসএসসি-র চেয়ারম্যানের পদ থেকে সিদ্ধার্থ মজুমদারের ‘স্বেচ্ছায় সরে’ যাওয়ার আগের ঘটনা হল, বিচারপতি তাঁর কাছে মন্ত্রী পরেশ অধিকারীর মেয়ে এবং মামলাকারীর প্রাপ্ত নম্বর ভার্চুয়াল মাধ্যমে জানতে চেয়েছিলেন। তিনি কালক্ষেপ না করে তা জানিয়ে দেন। প্রশাসনিক মহলের একাংশের মতে, সিদ্ধার্থবাবু তাড়াহুড়ো না করে বিচারপতির কাছে সময় চেয়ে নিতে পারতেন

You might also like