Latest News

নেতাজির প্ল্যানিং কমিশন তুলে দিয়েছে কেন্দ্র, ধিক্কার জানিয়ে মমতা বললেন ‘বাংলায় গড়ব’

দ্য ওয়াল ব্যুরো: গতবছর ২৩ জানুয়ারির কথা মনে পড়ে?

ভিক্টোরিয়ার উঠোনে হাজির ছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পোডিয়ামে দাঁড়াতেই জয় শ্রীরাম স্লোগান শুরু হয়ে গিয়েছিল অকুস্থলে। ক্ষোভে ফেটে পড়ে মাইক ছেড়ে নেমে গিয়েছিলেন মমতা।

সেটা ছিল ভোটের আগে। একুশের ভোট মিটে যাওয়ার পর এবারও নেতাজি নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য সংঘাত হয়েছে ট্যাবলো নিয়ে। যার বিষয় ছিল নেতাজি সুভষচন্দ্র বসু এবং আইএনএ। সেই আবহেই নেতাজি জয়ন্তীর বক্তৃতায় রেড রোড থেকে কেন্দ্রীয় সরকারের তীব্র সমালোচনা করলেন মুখ্যমন্ত্রী।

এদিন মমতা বলেন, ‘নেতাজির তৈরি করা প্ল্যানিং কমিশন বর্তমান ভারত সরকার তুলে তুলে দিয়েছে। লজ্জা জানানোর ভাষা নেই! ধিক্কার।’ এরপরেই মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘দিল্লি বাদ দিতে পারে, কিন্তু বাংলা তো পারে না। আমরা বাংলায় প্ল্যানিং কমিশন গড়ছি।’

যদিও বিরোধীদের অনেকের বক্তব্য, বাংলায় প্ল্যানিং কমিশন গড়ার কথা গতবারও বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী। এই একবছরে সেই কাজ কদ্দূর এগলো সেটা যদি তিনি বলতেন তাহলে ভাল হতো!


এদিন নেতাজি জয়ন্তী উপলক্ষ্যে মুখ্যমন্ত্রী তাঁর বক্তৃতায় শুধু নেতাজি নন, তুলে ধরতে চান স্বাধীনতা আন্দোলনে সামগ্রিকভাবে বাংলার গৌরবজ্জ্বল ভূমিকার কথা তুলে ধরতে চান। স্বাধীনতার ৭৫ বছর উপলক্ষ্যে রাজ্য সরকার কী কী কর্মসূচি নিয়েছে তাও এদিন ঘোষণা করেন মমতা। স্বাধীনতা আন্দোলনের সমস্ত তথ্যকে ডিজিটাইস করা, নারীদের অবদানের পৃথক সংকলন প্রকাশ, আলিপুর সেন্ট্রাল জেলে স্বাধীনতা সংগ্রামীদের নিয়ে স্থায়ী মিউজিয়াম গড়ার কথা এদিন রেড রোডের মঞ্চ থেকে ঘোষণা করেন তিনি।

তা ছাড়া নেতাজির নামে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় রাজ্য সরকার গড়ে তুলছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। মমতা এও অলেন, গতকাল তাঁকে টেকনো ইন্ডিয়া গোষ্ঠীর কর্ণধার সত্যম রায়চৌধুরী ফোনে জানিয়েছেন, চুঁচুড়ায় তারা একটা স্পোর্টস ইউনিভার্সিটি গড়ে তুলবে।
পর্যবেক্ষকদের মতে, নেতাজি জয়ন্তীর অনুষ্ঠানেও বাংলা-বাঙালি লাইনকেই ফোকাস করতে চেয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। বোঝাতে চেয়েছেন, এই বরেণ্য ব্যক্তিত্বদের প্রতি কেন্দ্রীয় সরকারের মনোভাবের কথাও।

You might also like