Latest News

Mamata Banerjee: এফআইআর মানেই এফআইআর নয়, পুলিশকে বললেন মমতা

দ্য ওয়াল ব্যুরো: বাংলায় গণতান্ত্রিক পরিবেশ রয়েছে বলেই গুচ্ছ গুচ্ছ এফআইআর হয়। এই কারণেই অপরাধের সংখ্যা বাড়িয়ে দেখানো হচ্ছে বলে অভিযোগ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)। নবান্নে সমস্ত জেলার পুলিশ ও প্রশাসনের সঙ্গে বৈঠকে এফআইআর নিয়ে একপ্রকার নির্দেশিকা দিয়ে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা পুলিশমন্ত্রী।

এদিন পুলিশের উদ্দেশে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “এফআইআর মানেই কিন্তু এফআইআর নয়।” তাঁর কথায়, কোনটা জিডি (জেনারেল ডায়েরি) থেকে এফআইআর হবে, কোনটা হবে না তা ভাল করে দেখে করতে হবে। কোনও কেসে একটা ধারা সংযোজন হতে পারে। অনেক সময়ে দেখা যাচ্ছে একটা কেসে চারটে এফআইআর হয়েছে। তাতে সংখ্যাটা বেড়ে যায়।

আপনাদের জন্য মুখ পুড়েছে, বগটুই-হাঁসখালি নিয়ে পুলিশকে মমতা

উদাহরণ দিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ধরুন চার জন সাংবাদিক মারপিঠ করছে। এটাকে কি খুনের চেষ্টা বলবেন, নাকি ব্যক্তিগত রোষ, নাকি স্রেফ ঝগড়া? সুতরাং বুঝে কাজ করতে হবে।

এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে বিজপি মুখপাত্র বলেন, এদিন মুখ্যমন্ত্রী গোটা রাজ্যের পুলিশকে আসলে ঠারেঠোরে বলে দিতে চাইলেন, যা-ই হয়ে যাক না কেন, এফআইআর যেন দায়ের না হয়।

বগটুইয়ে দাঁড়িয়ে গত ২৪ মার্চ মুখ্যমন্ত্রী বীরভূম পুলিশের উদ্দেশে বলেছিলেন, ভাল করে চার্জশিট সাজাতে হবে। যাতে জেল থেকে বেরোতে না পারে। এদিন কার্যত গোটা রাজ্যের পুলিশের উদ্দেশেই তিনি সেই কথা বললেন মমতা। সেইসঙ্গে এডিজি (আইনশৃঙ্খলা), আইজি, ডিআইজিদের উদ্দেশে মমতা বলেন, নিয়মিত থানায় ভিজিট করতে হবে। তাঁর স্পষ্ট কথা, উঁচু পদে বসে যাওয়া মানে ঘরে বসে যাওয়া নয়।

এদিন স্থানীয়স্তরে আইনশৃঙ্খলার বিষয়ে আইসি, ওসিদের আরও তৎপর হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কথায়, “আইসি, ওসিরা যেন মনে রাখেন একটা গোটা এলাকার নিরাপত্তা তাঁদের উপর নির্ভরশীল।’

সাম্প্রতিক সময়ে একাধিক ঘটনায় পুলিশের উপর অনাস্থা তৈরি হয়েছে। সেইসঙ্গে একের পর এক অপরাধ নিয়ে বিরোধীরা বাংলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে সোচ্চার। এই পরিস্থিতিতে এদিন মমতা বোঝাতে চাইলেন, বেশি এফআইআর মানেই বেশি ঘটনা ঘটছে তা নয়। তিনি এও বলেন, অনেক সময়ে মিথ্যে অভিযোগও দায়ের করা হয়। সেটা সঠিক ভাবে দেখে নিতে হবে।

You might also like