Latest News

‘রাজনীতি না করলে জিভ টেনে ছিঁড়ে দিতাম’, সিপিএম-বিজেপিকে আক্রমণ মমতার

দ্য ওয়াল ব্যুরো: অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের টাকার সঙ্গে যে ভাবে তাঁর ছবি জুড়ে দিয়ে প্রচার চালাচ্ছে বিরোধীরা তা নিয়ে সোমবার নজরুল মঞ্চ থেকে চড়া দাগে আক্রমণ শানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee)।

এদিন বঙ্গবিভূষণ প্রদানের মঞ্চে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, “একজন মহিলার বাড়ি থেকে কিছু টাকা উদ্ধার হয়েছে। আমি চাই সময় বেঁধে সত্যিটা বের করা হোক। যদি দোষী হয় তাহলে তাদের যাবৎজ্জীবন করাদণ্ড দিক। কিন্তু আমি দেখলাম, যে টাকা উদ্ধার হয়েছে তার সঙ্গে আমার ছবি দিয়ে প্রচার করছে সিপিএম, বিজেপি। আমি যদি রাজনীতি না করতাম তাহলে জিভটা টেনে ছিঁড়ে দিতাম।”

মুখ্যমন্ত্রী আরও বলেন, “আমি একটা পুজোয় গেছি। তারা আমায় ডেকেছিল। সেখানে কে আছে আমি জানি? পরে শুনলাম পার্থর বন্ধু। কে কার বন্ধু আমার পক্ষে জানা সম্ভব? আমি কারও পয়সায় খাই না। যখন রেলমন্ত্রী ছিলাম, তখন নিজের পয়সায় চা খেতাম। এখনও সার্কিট হাউসে গেলে নিজের পয়সায় থাকি, খাই।” বিরোধীদের উদ্দেশে হুঁশিয়ারির সুরে মমতা এও বলেন, “আমার গায়ে কালি লাগানোর চেষ্টা করবেন না, আমার হাতেও আলকাতরা আছে।”

অর্পিতার বাড়িতে টাকা পাওয়ার বিষয়টি নিয়ে এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, আমি ভাবতেও পারি না। সেইসঙ্গে তাঁর রাজনৈতিক দর্শনের কথাও এদিন তুলে ধরেন মমতা। তাঁর কথায়, “সারা জীবন রাজনীতি করেছি ভোগ করার জন্য নয়। ত্যাগের জন্যই রাজনীতি করেছি।”

এরপরেই মমতা বলেন, “সব স্কুলে সব স্টুডেন্ট একরকম হয়? পার্থক্য থাকে না? পার্থক্য না থাকলে তো আম ও আমড়া এক গাছে হতো। আমি অন্যায়কে সাপোর্ট করি না। দুর্নীতি আমার নেশাও নয় পেশাও নয়।”

পর্যবেক্ষকদের মতে, প্রায় পাঁচ দশকের বেশি সময় ধরে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলায় রাজনীতি করছেন। এই দীর্ঘ সময়ে তাঁর ব্যক্তিগত সততা নিয়ে কেউ অভিযোগ তুলতে পারবেন না। কিন্তু অর্পিতাকে কাণ্ডের পর যখন বিরোধীরা তাঁর ইমেজকে কালিমালিপ্ত করতে চাইছে তখন কার্যত গর্জে উঠলেন মমতা।

অর্পিতাকে চিনতেন মমতা, তৃণমূলের সঙ্গেও যোগ নিবিড়: পাল্টা শুভেন্দু

You might also like