Latest News

কোর্টের নথি ধ্বংস করার জন্যই বিস্ফোরণ লুধিয়ানার কোর্টে

দ্য ওয়াল ব্যুরো : গত শুক্রবার পাঞ্জাবের লুধিয়ানা জেলা আদালতে (Ludhiyana District Court) বিস্ফোরণে এক ব্যক্তি মারা যান। বিস্ফোরণস্থল থেকে উদ্ধার হয় মৃতের মোবাইল। তা থেকে জানা যায়, নিহত ব্যক্তির নাম গগনদীপ সিং (Gagandip Singh)। বয়স ৩০। তাঁর হাতের ট্যাটু দেখেও তাঁকে চিহ্নিত করেন পরিচতরা। মৃত ব্যক্তি ছিলেন পাঞ্জাব পুলিশের হেড কনস্টেবল (Head Constable)। মাদক পাচারের অভিযোগে ২০১৯ সালে তাঁকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে মামলা চলছিল। শুক্রবার ছিল সেই মামলার শুনানি।

তদন্তে জানা গিয়েছে, মাদক পাচার সংক্রান্ত নথি নষ্ট করার জন্য গগনদীপ বিস্ফোরণ ঘটাতে চেয়েছিলেন। আদালতের শৌচাগারে বোমার বিভিন্ন অংশ অ্যাসেম্বল করার সময় বিস্ফোরণ ঘটে।

পুলিশ সূত্রে খবর, গগনদীপ থাকতেন খান্না অঞ্চলের লালহেরি রোডে। ২০১৯ সালের অগাস্টে তিনি গ্রেফতার হন। তাঁকে দু’বছর জেলে কাটাতে হয়েছিল। গত সেপ্টেম্বরে তিনি জামিনে মুক্তি পান। খান্না পুলিশ জানায়, ২০১৯ সালে আমনদীপ সিং ও বিকাশ কুমার নামে দুই ব্যক্তির গাড়ি থেকে ৪৪ গ্রাম হেরোইন পাওয়া যায়। জেরায় তারা জানায়, ড্রাগ পাচার চক্রের পাণ্ডা হলেন গগনদীপ ওরফে গাগগি। মোহালিতে এনডিপিএস আইনে গগনদীপের বিরুদ্ধে মামলা করা হয়।

লুধিয়ানার এক পুলিশ অফিসার জানিয়েছেন, ২০১১ সালে পুলিশের চাকরিতে যোগ দেন গগনদীপ। গ্রেফতার হওয়ার আট মাস আগে তাঁকে খান্না অঞ্চলে পোস্টিং দেওয়া হয়েছিল। তার দু’মাস পরে তিনি মাদক চালানে যুক্ত হন।

গত বৃহস্পতিবার পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী চরণজিৎ সিং চান্নি বলেন, অমৃতসরের স্বর্ণমন্দিরে ধর্মের অবমাননার সঙ্গে লুধিয়ানার বিস্ফোরণের তদন্ত একইসঙ্গে করা হবে। কেন্দ্রীয় আইন ও ন্যায়বিচারমন্ত্রী কিরেণ রিজিজু বলেন, রাজ্য সরকারের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারও লুধিয়ানার বিস্ফোরণ নিয়ে তদন্ত করবে।

You might also like